স্রষ্টার সিফাতের দ্বন্দ্ব স্রষ্টার অস্তিত্ব কে বাতিল করে দেয়?

প্রশ্নোত্তর (Q&A)Category: দর্শনস্রষ্টার সিফাতের দ্বন্দ্ব স্রষ্টার অস্তিত্ব কে বাতিল করে দেয়?
Sapiens asked 7 months ago
সংজ্ঞানুযায়ী, স্রষ্টা সর্বশক্তিমান,  সব জানেন এবং তার স্বাধীন ইচ্ছে আছে।  এবার, তিনি ৫ সেকেন্ড পর কি করবেন তা তিনি ০ সেকেন্ড সময়েই জানেন, যেহেতু তিনি omniscience. সুতরাং, God knows t at the time of t=0 or t\' ( necessarily)   আবার তিনি যেহেতু সর্বশক্তিমান, সেহেতু তিনি  0 সেকেন্ড সময় এবং 5 সেকেন্ড সময়ে যা ইচ্ছে করতে পারবেন। সুতরাং,  God can anything at t=0 & at the time of t=5 তাহলে স্রষ্টা ৫ সেকেন্ড পর কি করবেন তা তিনি জানেন, এখন তিনি কি যা জানেন তা  তার স্বাধীন ইচ্ছের মাধ্যমে \'না\' করতে পারবেন?   
১. যদি তিনি স্বাধীন ইচ্ছের মাধ্যমে তার ৫ সেকেন্ড এর জানা কাজটি না  করতে পারেন তবে তার স্বাধীন ইচ্ছে রয়েছে তবে তিনি সর্বজ্ঞানী নন যেহেতু তিনি জানেন না যে তিনি কি করবেন। ২. তিনি যা জানেন যে তিনি ৫ সেকেন্ড পর কি করবেনক্স সেটি যদি তিনি তার স্বাধীন ইচ্ছের মাধ্যমে না করতে পারেন তার মানে তিনি সর্বশক্তিমান নন এবং তার স্বাধীন ইচ্ছেও নেই।  যদি স্রষ্টার যেকোনো একটি গুণে সমস্যা দেখা দেয় তবে তিনি আর \'স্রষ্টা\' থাকছেন না। আর দেখাই যাচ্ছে স্রষ্টার গুনগুলো কাউন্টার ইন্টুইটিভ এবং তা বৈপরীত্য সৃষ্টি করে সুতরাং স্রষ্টার অস্তিত্ব অসম্ভব।   
এর উত্তর কি দিবেন?
2 Answers
Best Answer
Asief Mehedi answered 7 months ago
প্রশ্নটি আমার উত্তরে পুনরাবৃত্তি করছিনা। মূলত এই প্রশ্নে বেশ কিছু পুর্বধারনা বিদ্যমান। যেমন গড t=0 তে কোনো সিদ্ধান্ত নেবেন এবং আবার t=5 এ কোনো ডিসিশন মেক করবেন এটা মূলত একটা টেন্সড ফ্যাক্ট,  যা A theory of time এর ক্ষেত্রে ভ্যালিড।  তবে ক্লাসিক্যাল কন্সেপ্ট এ কোথাও গড কে in time ধরা হয়না, বরং তিনি টাইমলেস এবং তার action গুলো রৈখিক ক্রমের উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়না। বরং তার উইল 'ইটারনাল' যার ফলে পর্যায়ক্রমে আল্লাহ কে C ফ্যাক্ট এর মতো করে সিদ্ধান্ত নিতে হয়না।   
এই প্রশ্নে ধরে নেয়া বিষয় হলো, C ফ্যাক্ট এর ডিসিশন মেকিং এবং আল্লাহ তায়ালার ডিসিশন মেকিং সেইম ভাবে ফাংশন করে, তবে এটি স্পষ্ট যে দুটো ডিসিশন মেকিং সেইম ভাবে ফাংশনাল নয়, যার ফলে আর্গুমেন্টটির শুরুতেই এর কোলাপ্স ঘটে।  
নোট: A theory of time: এই মতে সময় হলো টেন্সড ফ্যাক্ট। কেবল প্রেজেন্ট এর অস্তিত্ব আছে, এবং ফিউচার সম্ভাব্য, আগত। 
 C ফ্যাক্ট= Contingent fact 
Tahsin Arafat Staff answered 7 months ago

এই আর্গুমেন্ট দেখা যাচ্ছে "আল্লাহ এমন কিছু বানাতে পারবেন কিনা যা তিনি নিজেই ধ্বংস করতে পারবেন না?" এরকম। বস্তুত আল্লাহ যা "করবেন " তা "না করবেন" কীভাবে? এটা তো পরষ্পরবিরোধিতা। যা আল্লাহর শা'নের সাথে যায় না।

নিশ্চয়ই আল্লাহ অঙ্গীকারের খেলাফ করেন না। - কুরআন ৩ঃ৯

সর্বশক্তিমান বলতে অবাস্তব কোনো কিছুকে বোঝায় না।

শাইখুল ইসলাম [ইবন তাইমিয়া] (র.) বলেছেন,

“আহলুস সুন্নাহর দৃষ্টিভঙ্গী হলো, আল্লাহ তা’আলা সকল কিছুর উপর ক্ষমতাবান – এই কথার দ্বারা সকল বাস্তব জিনিসকে বোঝানো হয়। যা স্বভাবগতভাবেই অবাস্তব, যেমনঃ যার কোনো অস্তিত্বই নেই, এর মাঝে কোনো হাকিকত নেই। এর অস্তিত্বের কথা ভাবা যায় না। একে যে ‘কিছু’ই বলা যায় না, এ ব্যাপারে প্রজ্ঞাবান ব্যক্তিগণ একমত। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো “তাঁর (আল্লাহ) ন্যায় অন্য কাউকে সৃষ্টি করা।” এবং এই জাতীয় আরো বিষয়াবলী।” -- বক্তব্য সমাপ্ত। [মিনহাজুস সুন্নাহ ২/২৯৪]

আরো দেখুনঃ

Tahsin Arafat Staff replied 7 months ago

হতে পারে, আপনি বেটার হয় উত্তরটা দিয়ে দিন, ফিলোসফির বিষয়।

Back to top button