সুষ্ঠ জ্ঞান, মানব স্বভাব ও মৌলিক শিক্ষার মানদণ্ডে হিন্দুধর্ম

⌘K
  1. Home
  2. Docs
  3. সুষ্ঠ জ্ঞান, মানব স্বভাব ...
  4. ১৯। এমন সব প্রশ্নের জবাব ইসলামে রয়েছে, যার উত্তর দিতে জ্ঞান-বুদ্ধি হয়রান হয়ে যায়? যেমন: আমরা কোথা থেকে এসেছি? আমরা এ পৃথিবীতে কেন এসেছি? আর আমরা কোথায় প্রত্যাবর্তন করব?

১৯। এমন সব প্রশ্নের জবাব ইসলামে রয়েছে, যার উত্তর দিতে জ্ঞান-বুদ্ধি হয়রান হয়ে যায়? যেমন: আমরা কোথা থেকে এসেছি? আমরা এ পৃথিবীতে কেন এসেছি? আর আমরা কোথায় প্রত্যাবর্তন করব?

উত্তর: পবিত্র কুরআনের মাত্র একটি আয়াতেই ইসলাম এসব প্রশ্নের প্রতিটির উত্তর দিয়েছে। আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা‘আলা বলেছেন:
﴿وَمَالِيَ لَآ أَعۡبُدُ ٱلَّذِي فَطَرَنِي وَإِلَيۡهِ تُرۡجَعُونَ٢٢﴾ [يس: 22] “আর আমার কি যুক্তি আছে যে, যিনি আমাকে সৃষ্টি করেছেন এবং যাঁর কাছে তোমাদেরকে ফিরিয়ে নেওয়া হবে, আমি তার ‘ইবাদত করব না?” সূরা ইয়াসিন, আয়াত: ২২।
আমি কোথা থেকে এসেছি? আল্লাহ আমাকে সৃষ্টি করেছেন: “যিনি আমাকে সৃষ্টি করেছেন।”
আর আমি কোথায় যাব? আমি অচিরেই আল্লাহর কাছে যাব, আমার আমলের হিসাবের জন্য: “এবং যাঁর কাছে তোমাদেরকে ফিরিয়ে নেওয়া হবে।”
কেন আমি এ পৃথিবীতে এসেছি? আল্লাহর ইবাদাত করা ও পরীক্ষা দেওয়ার জন্য।
আমি কেন আল্লাহর ইবাদাত করব? এটা প্রকৃতিগত বিষয় যে, আমি সেই আল্লাহরই ইবাদাত করব, যিনি আমাকে সৃষ্টি করেছেন। এটিই তো বান্দা ও তার রবের মধ্যকার প্রকৃতিগত সম্পর্ক … বান্দা তার প্রতিপালক ও সৃষ্টিকর্তার ইবাদাত করবে। [আল্লাহর বাণী, যার অর্থ:] “আমার কী হল যে, আমি আমাকে যিনি সৃষ্টি করেছেন, তাঁর ইবাদাত করব না?”
একটি আয়াতেই মানুষকে অবাক করা তিনটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের জবাব একত্রে রয়েছে।
﴿وَمَالِيَ لَآ أَعۡبُدُ ٱلَّذِي فَطَرَنِي وَإِلَيۡهِ تُرۡجَعُونَ٢٢﴾ [يس: 22] “আর আমার কি যুক্তি আছে যে, যিনি আমাকে সৃষ্টি করেছেন এবং যাঁর কাছে তোমাদেরকে ফিরিয়ে নেওয়া হবে, আমি তার ‘ইবাদত করব না?” সূরা ইয়াসিন, আয়াত: ২২।

    How can we help?