Islamবিবিধ

সেলফ বিজনেসের শরঈ বিধান

সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে এখন অনেকেই ঘরে বসে থেকে ইনকাম করছে। মাশাআল্লাহ, এটা অনেক ভালো কাজ, যেভাবেই হোক হালাল পদ্ধিতে ইনকাম হলে হলেই হলো, চাই সেটা অনলাইনে হোক কিংবা অফলাইনে।

আল্লাহ তায়ালা বলেন,

فَاِذَا قُضِیَتِ الصَّلٰوۃُ فَانۡتَشِرُوۡا فِی الۡاَرۡضِ وَابۡتَغُوۡا مِنۡ فَضۡلِ اللّٰہِ وَاذۡکُرُوا اللّٰہَ کَثِیۡرًا لَّعَلَّکُمۡ تُفۡلِحُوۡنَ

অতঃপর নামায শেষ হয়ে গেলে তোমরা যমীনে ছড়িয়ে পড় এবং আল্লাহর অনুগ্রহ (রিযিক) সন্ধান কর, এবং আল্লাহকে স্মরণ কর বেশি বেশি যাতে তোমরা সফলকাম হও।সূরা জুমআ, আয়াত ১০

অন্য জায়গায় আল্লাহ তায়ালা বলেন:

اَحَلَّ اللّٰہُ الۡبَیۡعَ وَحَرَّمَ الرِّبٰوا

আল্লাহ বিক্রিকে হালাল করেছেন এবং সুদকে হারাম করেছেন।সূরা বাকারা, আয়াত ২৭৫

ইসলাম হলো পূর্ণাঙ্গ জীবন বিধান, অর্থাৎ আমি জীবনে যা করবো সব কিছুই ইসলামের মধ্যে রয়েছে, আর আমি একজন মুসলিম হিসেবে নিজেকে আল্লাহ তায়ালার সমীপে সোপর্দ করে দিয়েছি। শুধু মাত্র নামাজ, রোজা, হজ্জ, যাকাতের ক্ষেত্রে ইসলামী বিধান মেনে চলবো, কিন্তু ব্যাবসা-বাণিজ্য এর ক্ষেত্রে ইসলামী বিধানের তোয়াক্কা করবো না, এটা কখনোই একজন পূর্নাঙ্গ মুসলিমের বৈশিষ্ট্য হতে পারে না।

সেলফ বিজনেস যেহেতু একটি ব্যাবসা, এজন্য আমাদের শরীয়তের মধ্যে যে ব্যাবসার মূলনীতিগুলো রয়েছে, সেগুলোর অনুসরণ করা আবশ্যক। যদি এই ব্যাবসার মধ্যে শরীয়ত গর্হিত কোন কাজ থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই তা বর্জনীয়।

সেলফ বিজনেস টা মূলত কী?

সেলফ বিজনেস হলো, মাল্টি লেভেল মার্কেটিং (MLM) এর মতই একটি বিজনেস প্ল্যাটফর্ম।

  • এখানে প্রথমে টাকা দিয়ে একাউন্ট করতে হবে, তারপর আপনি তাদের থেকে পণ্য নিয়ে অন্য কাস্টমারকে সেল করে ইনকাম করতে পারবেন।
  • এবং আপনার রেফারে যদি আরও কেউ এখানে যুক্ত হয় তাহলে তার কমিশনও আপনি পাবেন। আপনি তাদের থেকে কোর্স নেওয়ার পর কাজ না করলেও প্রতিদিন কিছু টাকা করে আপনার অ্যাকাউন্টে জমা হতে থাকবে।

ইসলামী শরীয়ত কি বলে দেখি:

১. শরীয়তের মূলনীতি হলো;

এক বিক্রিতে দুই ধরণের শর্ত করা জায়েজ নেই। যা সেলফ বিজনেসের মধ্যে পাওয়া যায়। অর্থাৎ আপনি তখনই তাদের থেকে পণ্য নিয়ে সেল করতে পারবেন, যখন আপনি তাদের কাছে টাকা দিয়ে কোর্স কিনবেন। এখানে এক চুক্তিতে দুটি শর্ত বিদ্যমান।

রাসূল ﷺ বলেন:

لاَ يَحِلُّ سَلَفٌ وَبَيْعٌ وَلاَ شَرْطَانِ فِي بَيْعٍ

এক বিক্রিতে দুই ধরণের শর্ত করা জায়েজ নয়।[1]তিরমিযী হাঃ ১২৩৪ https://www.hadithbd.com/hadith/link/?id=40078

২. শরীয়তের আরেকটি মূলনীতি হলো:

প্রতারণামূলক ক্রয়-বিক্রয় হারাম। যা সেলফ বিজনেসের মধ্যে বিদ্যমান। যখন সেলার কোনো পণ্য বিক্রেতার কাছে বিক্রি করার কথা বলে তখন সেলার নিজেও জানে না গুণাগুণ সম্পর্কে। কারণ সেলারের কাছে পণ্যটি উপস্থিত থাকে না, বরং সেলার শুধু ক্রেতা জোগাড় করে এনে, ক্রেতার দেওয়া ঠিকানা ডিলারের কে দিয়ে তার মাধ্যমে পণ্য অর্ডার করে দিবে।

রাসূলুল্লাহ (ﷺ) বলেছেনঃ

وَمَنْ غَشَّنَا فَلَيْسَ مِنَّا

আর যে আমাদেরকে ধোঁকা দেয়, সেও আমাদের দলভুক্ত নয়।[2]মুসলিম ২৯৪-২৯৫, ইবনে মাজাহ ২২২৪, তিরমিযী ১৩১৫, আবূ দাউদ ৩৪৫২

৩. শরীয়তের আরেকটি মূলনীতি হলো:

পণ্য বিক্রি করার জন্য শর্ত হলো, বিক্রেতার কাছে পণ্য মওজুদ থাকা। যা সেলফ বিজনেসের মধ্যে পাওয়া যায় না। কারণ বিক্রেতার কাছে পণ্য থাকে না বরং ক্রেতা যখন কোনো পণ্য নিতে চায় তখন বিক্রেতা তার ঠিকানা নিয়ে ডিলার কে পাঠিয়ে দেয়, সেই ডিলের মাধ্যমে ক্রেতারা কাছে পণ্যটি পৌঁছে।

রাসূলুল্লাহ (ﷺ) বলেছেনঃ

وَلاَ بَيْعُ مَا لَيْسَ عِنْدَكَ

যা তোমার কাছে নেই তা বিক্রি করা জায়িয নয়।[3]সুনানে আবু দাউদ ৩৫০৪ https://www.hadithbd.com/hadith/link/?id=60872

৪. শরীয়তের আরেকটি মূলনীতি হলো:

ক্রয়-বিক্রয়ের মধ্যে অযাচিত মধ্যস্বত্ত্বভোগী হওয়া শরীয়তে জায়েজ নেই। যা সেলফ বিজনেসের মধ্যে পাওয়া যায়। ক্রেতা যদি সরাসরি ডিলারের থেকে ক্রয় করে তাহলে সল্প মূল্যেই পণ্যটি পাবে, কিন্তু মধ্যখানে সেলার মধ্যস্বত্ত্বভোগী হওয়ায় পণ্যের মূল্য বেড়ে যাচ্ছে যেটা শরীয়ত চায় না।

রাসূলুল্লাহ ﷺ বলেছেন:

لَا يَبِيعُ حَاضِرٌ لِبَادٍ، دَعُوا النَّاسَ يَرْزُقُ اللَّهُ بَعْضَهُمْ مِنْ بَعْضٍ

স্থানীয় লোকজন বহিরাগতদের পক্ষে ক্রয়–বিক্রয় করবে না। তোমরা লোকদেরকে স্বাধীনভাবে ছেড়ে দাও। আল্লাহ তাদের একজন থেকে অপর জনকে রিযক দান করবেন।[4]সহিহুল মুসলিম ১৫২২, তিরমিযী ১২২৩, আবূ দাউদ ৩৪৪২, মুসনাদে আহমাদ ১৩৮৭৯, ১৩৯৩০, ১৪৭২১, ১৪৭৯৮, গায়াতুল মারাম ২১৭৬, ইবনে মাজাহ ২১৭৬ https://www.hadithbd.com/hadith/link/?id=42790

৫. শরীয়তের আরেকটি মূলনীতি হলো

চুক্তিকে শর্তের সাথে ঝুলন্ত রাখা জায়েজ নেই।

যা সেলফ বিজনেসের মধ্যে পাওয়া যায়। অর্থাৎ কোর্স নেওয়ার পর , সেলার হিসেবে প্রতিটা পণ্য বিক্রির কারণে কিছু কমিশন পাবেন, সাথে আপনার রেফারের মাধ্যমে যতজন সেলফ একাউন্ট করবে তারও একটা কমিশন আপনি পাবেন, এখানে আপনার রেফারে মানুষ একাউন্ট করতেও পারে নাও করতে পারে, উভয়েরই সম্ভাবনা রয়েছে। করলে কমিশন পাচ্ছেন আর না করলে কমিশন পাচ্ছেন না। এ ধরনের শর্ত যুক্ত চুক্তি শরীয়তে জায়েজ নেই।

হানাফী আলেমদের মধ্যে আল্লামা আবুল বারাকাত নাসাফি রহ. বলেন:

ما يبطل بالشرط الفاسد لا يصح تعليقه بالشرط

৬. শরীয়তের আরেকটি মূলনীতি হলো:

শ্রমহীন বিনিময় গ্রহণ জায়েজ নেই। যা সেলফ বিজনেসের মধ্যে বিদ্যমান। অর্থাৎ আপনি কোর্স কেনার পর, কাজ না করলেও প্রতিদিন কিছু টাকা আপনার একাউন্টে জমা হতে থাকবে। এরকম শ্রমহীন বিনিময় গ্রহণ করা জায়েজ নেই।

আল্লাহ তায়ালা বলেন:

لا تاكلوا اموالكم بينكم بالباطل

তোমরা পরস্পরে একে অন্যের সম্পদ অন্যায়ভাবে ভোগ করো না।সূরা বাকারা : ১৮৮

মোটকথা: সেলফ বিজনেসের নিয়ম-পদ্ধতি বিশ্লেষণ করলে জানা যায় যে, এ ব্যবসা পদ্ধতিতে উল্লেখিত কারণ ছাড়া আরও শরীয়ত নিষিদ্ধ কার্যকলাপ রয়েছে, সুতরাং কোনো মুসলমানের জন্য এসমস্ত কোম্পানিতে জড়িত হওয়া জায়েজ হবে না।

    Footnotes

    Footnotes
    1তিরমিযী হাঃ ১২৩৪ https://www.hadithbd.com/hadith/link/?id=40078
    2মুসলিম ২৯৪-২৯৫, ইবনে মাজাহ ২২২৪, তিরমিযী ১৩১৫, আবূ দাউদ ৩৪৫২
    3সুনানে আবু দাউদ ৩৫০৪ https://www.hadithbd.com/hadith/link/?id=60872
    4সহিহুল মুসলিম ১৫২২, তিরমিযী ১২২৩, আবূ দাউদ ৩৪৪২, মুসনাদে আহমাদ ১৩৮৭৯, ১৩৯৩০, ১৪৭২১, ১৪৭৯৮, গায়াতুল মারাম ২১৭৬, ইবনে মাজাহ ২১৭৬ https://www.hadithbd.com/hadith/link/?id=42790
    Show More
    0 0 votes
    Article Rating
    Subscribe
    Notify of
    guest
    1 Comment
    Oldest
    Newest Most Voted
    Inline Feedbacks
    View all comments
    Tahsin Arafat
    Admin
    26 days ago

    আমি যদি ভুল না করে থাকি তবে হানাফী আলেমগণের মাঝেও আল্লামা আবুল বারাকাত নাসাফি রহ. এর সাথে ভিন্নমত রয়েছে
    আপনি দু’টি নীতি উল্লেখ করেন নি কেন? https://shamela.ws/book/21613/2973

    আর অন্যান্য মাজহাবেও মতের পার্থক্য আছেঃ
    https://islamqa.info/ar/answers/280996/

    Last edited 26 days ago by Tahsin Arafat
    Back to top button