হিন্দুধর্ম

যজুর্বেদ ৩/৬ – দয়ানন্দের গোল পৃথিবী আবিষ্কার

আসুন আজ আমরা স্বামী দয়ানন্দ সরস্বতীর একটি বিকৃত ভাষ্য দেখবো, তা হলো শুক্ল যজুর্বেদের অধ্যায় ৩ এর মন্ত্র নং ৬। এখানে স্বামী দয়ানন্দ সরস্বতী সে সময়ের পশ্চিমা বিজ্ঞানকে বেদে ঢুকিয়ে দিয়েছে বিকৃত করতে গিয়ে। আর তার অনুসারীরা এ বিকৃত ভাষ্য নিয়ে অনলাইনে প্রচুর মিথ্যাচার করে। আসুন আমরা সেটা নিয়ে একটু নাড়াচাড়া করি। যজুর্বেদের ৩/৬ মন্ত্রটি হলোঃ

আऽয়ং গৌঃ পৃশ্নিরক্রমীদসদন্ মাতরং পুরঃ ।
পিতরংচ প্রয়ন্ৎস্বঃ ॥ ৬ ॥

দয়ানন্দ সরস্বতী এই মন্ত্রের অর্থে আবিষ্কার করেছে পৃথিবী গোল, তার করা অর্থ দেখুনঃ

পদার্থঃ- (অয়ম্) এই প্রত্যক্ষ (গৌঃ) গোলরূপী পৃথিবী (পিতরম্) পালনকারী (স্বঃ) সূর্য্যলোকের (পুরঃ) আগে-আগে অথবা (মাতরম্) স্বীয় যোনিরূপ জল সহ সহবর্ত্তমান (প্রয়ন্) প্রকৃষ্টরূপে গমনকারী (পৃশ্নিঃ) অন্তরিক্ষে অর্থাৎ আকাশে (অক্রমীৎ) চতুর্দ্দিকে (অসদৎ) স্বকক্ষ ভ্রমণ করে ॥ ৬ ॥[1]য়জুর্বেদ ভাষ্যম, ৩/৬, মূলঃ দয়ানন্দ সরস্বতী, বাংলা অনুবাদঃ সতীশ চন্দ্র বিদ্যারত্ন

ভাবার্থঃ মনুষ্যদিগের জানা উচিত যে, যদ্দ্বারা এই পৃথিবী গোল বা গোলাকার…

স্বামী দয়ানন্দ সরস্বতী যজুর্বেদ ৩.৬ এর যে শব্দ টা বিকৃত করেছে তাহলো “গৌঃ“। দয়ানন্দ সরস্বতী “গৌঃ” মানে পৃথিবী কে গোল বা গোলাকার বানিয়ে দিয়েছে, অথচ হিন্দুদের বেদাঙ্গ নিরুক্তে এটির অর্থ কোথাও গোলাকার নেই, দয়ানন্দের আগে কেউ এই অর্থ আবিষ্কার করে নি।

  1. গৌঃ মানে গরু।[2][নিরুক্তের বাংলা অনুবাদের খণ্ড, অধ্যায়, পরিচ্ছদ, শ্লোক আকারে রেফারেন্সিং করা হয়েছে] নিরুক্তঃ ১.১.১.১৫; নিরুক্তঃ ১.১.৩.১.৫
  2. গৌঃ মানে জ্যা বা ধনুর গুণ।[3]নিরুক্তঃ ১.২.৫.১৫; নিরুক্তঃ ১.২.৬.১
  3. গৌঃ মানে সূর্য মণ্ডল।[4]নিরুক্তঃ ১.২.৬.৮
  4. গৌঃ মানে সূর্যের রশ্মি।[5]নিরুক্তঃ ১.২.৬.১০
  5. গৌঃ মানে বিদ্যুৎ।[6]নিরুক্তঃ ১.২.৯.১; নিরুক্তঃ ১.২.৯.২; নিরুক্তঃ ৪.১১.৪১.৩
  6. গৌঃ মানে আদিত্যবোধক বা সূর্য বোধক।[7]নিরুক্তঃ ১.২.১৪.৭
  7. গৌঃ মানে পৃথিবী।[8]নিরুক্তঃ ১.২.৫.২

দেখুন আমরা নিরুক্ত থেকে (গৌঃ) শব্দের কতগুলো অর্থ বের করলাম কিন্তু কোথায় (গৌঃ) মানে গোলাকার বা গোল পেলাম না। কিন্তু স্বামী দয়ানন্দ সরস্বতী (গৌঃ) কে সরাসরি গোল বা গোলাকার পৃথিবী বানিয়ে দিয়েছে কতটা হাস্যকর। আসলে (গৌঃ) এর একটি অর্থ পৃথিবী এটা সঠিক কিন্তু (গৌঃ) মানে গোলাকার পৃথিবী এ কথা টাই বিকৃত। আসলে নিরুক্তের আলোকে যজুর্বেদঃ ৩.৬ এর ভাষ্যটা এমন হবে দেখুনঃ

অয়ম (এই প্রত্যেক্ষ), গৌঃ (পৃথিবী [সম্ভাব্য]), পিতরম (পালনকারী)…

অর্থঃ মনুষ্যদিগের জানা উচিত যে, যদ্দ্বারা এই পৃথিবী…

তবে যজুর্বেদের ৩.৬ উক্ত মন্ত্রে গোল পৃথিবী ঢুকিয়ে দেন নি বেদের ক্লাসিক্যাল অর্থকারক সায়ণঃ

যজুর্বেদ ৩/৬ - দয়ানন্দের গোল পৃথিবী আবিষ্কার

পাশাপাশি দয়ানন্দের ভাবধারার আর্যসমাজের আরো দুইজন দয়ানন্দের বিপরীত অর্থ করেছেন,

  • মাতা সবিতা যোশী
  • হরিশরণ সিদ্ধান্তলঙ্কার।

আর্যসমাজীদের ভাষ্যকার মাতা সবিতা যোশী ও পণ্ডিত হরিশরণ সিদ্ধান্তলঙ্কার যজুর্বেদঃ ৩.৬ তে কোথায় (গৌঃ) মানে গোলাকার করে নাই বরং তারা নিরুক্ত অনুযায়ী সরাসরি (গৌঃ) মানে পৃথিবী করেছে। কিন্তু স্বামী দয়ানন্দ সরস্বতী পৃথিবীর পাশাপাশি গোল বা গোলাকার শব্দটাও ঢুকিয়ে দিয়েছে।

    Footnotes

    Footnotes
    1য়জুর্বেদ ভাষ্যম, ৩/৬, মূলঃ দয়ানন্দ সরস্বতী, বাংলা অনুবাদঃ সতীশ চন্দ্র বিদ্যারত্ন
    2[নিরুক্তের বাংলা অনুবাদের খণ্ড, অধ্যায়, পরিচ্ছদ, শ্লোক আকারে রেফারেন্সিং করা হয়েছে] নিরুক্তঃ ১.১.১.১৫; নিরুক্তঃ ১.১.৩.১.৫
    3নিরুক্তঃ ১.২.৫.১৫; নিরুক্তঃ ১.২.৬.১
    4নিরুক্তঃ ১.২.৬.৮
    5নিরুক্তঃ ১.২.৬.১০
    6নিরুক্তঃ ১.২.৯.১; নিরুক্তঃ ১.২.৯.২; নিরুক্তঃ ৪.১১.৪১.৩
    7নিরুক্তঃ ১.২.১৪.৭
    8নিরুক্তঃ ১.২.৫.২
    Show More
    0 0 votes
    Article Rating
    Subscribe
    Notify of
    guest
    2 Comments
    Oldest
    Newest Most Voted
    Inline Feedbacks
    View all comments
    আব্দুল্লাহ
    আব্দুল্লাহ
    25 days ago

    ভাই রে ভাই, শুধু শুধু এটা দেখাইলেন!! পৃথিবীর আকৃতি আসলে উপবৃত্তাকার, সুতরাং বেদে বৈজ্ঞানিক ভুল আছে!!!

    The Earth is an irregularly shaped ellipsoid.[reference]

    Tahsin Arafat
    Reply to  আব্দুল্লাহ
    24 days ago

    উপবৃত্তাকার – গোলাকার সমস্যার না, কারণ উপবৃত্তাকার একপ্রকার গোলাকারই।

    Back to top button