সেক্যুলারিজমইতিহাসইসলামবিরোধীদের প্রতি জবাবনারীবাদ

বাল্যবিবাহের ইতিকথা

সেক্যুলার ও নারীবাদী সমাজে বাল্যবিবাহ টার্মটাকে অনেক প্রচার করা হয়। কিন্তু কখনো ভেবে দেখেছেন কি আসলে বাল্যবিবাহ কি? বাল্যবিবাহের যে বয়স, বাল্যবিবাহ আইন তা আসলে কীসের ভিত্তিতে করা হয়েছে? এই বয়সের যৌক্তিকতাটাই বা কি? সাধারণত ১৮ বছর বয়সের আগে বিবাহকে বাল্যবিবাহ হিসেবে গণ্য করতে দেখি আমরা। কিন্তু প্রশ্ন হল যেই মেয়ে ১৭ বছর ১১ মাস ৩০ দিন পর্যন্ত বিবাহের জন্য অনুপযুক্ত থাকে, সে মাত্র একরাতের ব্যবধানে ম্যাজিকালি কীভাবে উপযুক্ত হয়?

এছাড়া আরো বহু প্রশ্ন জাগ্রত হয় যেমন, শিশুকে কীসের ভিত্তিতে সংজ্ঞায়িত করবেন? কীসের ভিত্তিতে বলবেন ৯/১১/১৩ বছরের কাউকে শিশু ও ১৯/২১/২৩ বছরের কাউকে শিশু না? কীসের ভিত্তিতে তাদের নির্ধারণ করা শিশুর বয়স পর্যন্ত মানুষ শিশু থাকে? কেন তত বছর পর্যন্তই শিশু থাকে? তার চেয়ে কম বেশি নয় কেন? দুনিয়ার সব স্থানে, সব যুগে এই বিষয়টা একই ছিল কিনা, যদি ভিন্ন হয় তাহলে কে নির্ধারণ করবে কত বছর পর্যন্ত শিশু থাকে? তার কথাই কেন মানতে হবে? সে সঠিক সেটার প্রমাণ বা ভিত্তিটাই বা কি? অন্য কেউ কেন সঠিক হতে পারে না? অন্য কারোটা কেন মানবো না? বিজ্ঞানের নাকি রাষ্ট্রের নাকি সমাজের নাকি বিভিন্ন ধর্মের দেওয়া সংজ্ঞা দ্বারা শিশুকে সংজ্ঞায়িত করবেন? যদি রাষ্ট্রের দেওয়া সংজ্ঞাই শিশুর আদর্শ সংজ্ঞা মানা হয় তাহলে প্রশ্ন হলো কোন রাষ্ট্রকে আদর্শ রাষ্ট্র হিসেবে গণ্য করা হবে? যদি ধর্মের দেওয়া সংজ্ঞাই মানা হয় তাহলে প্রশ্ন হলো কোন ধর্মকে আদর্শ ধর্ম হিসেবে গণ্য করা হবে? কোন সমাজ, সময়কে আদর্শ হিসেবে মানা হবে? কেন সেটাকেই মানা হবে বা মানতে হবে? বিয়ের আদর্শ বয়স কত ধরা হবে? বিয়ের আদর্শ বয়স কীসের ভিত্তিতে ধরা হবে? সেই বয়সই যে সঠিক তার ভিত্তি কি? কেন আপনাদের আইন মানতে বাধ্য থাকবে কেউ? বিংশ শতাব্দীর আগ পর্যন্ত সব পুরুষরা ‘pedophilic disorder’ এ আক্রান্ত ছিল? আজকের দিনের আইন দিয়ে অতীতের সবাইকে কি ধর্ষক বলা সম্ভব? ভবিষ্যতের আইন দিয়ে যদি বর্তমানের সবাইকে ধর্ষক ট্যাগ দেওয়া হয় তখন বিষয়টা কেমন হবে? এগুলোকে ডিফাইন করা ছাড়া আপনি যাকে তাকে পেডোফিলিক, যে কোন বিবাহকে বাল্যবিবাহ ট্যাগ দিতে পারবেন না।

মেয়েদের ১৮ বছর হওয়ার আগেই যৌনসহবাস

চলুন এইবার আমাদের প্রিয় পাশ্চাত্য সভ্যতার কিছু আজব রীতি নীতি দেখে আসা যাক। বিখ্যাত সাইকলজিস্ট, সেক্সোলজিস্ট ও জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটির প্রফেসর John Money, যার অনেক থিওরি মানবিক যৌনতা সংক্রান্ত পাঠ্যপুস্তকের প্রমাণিত সত্য হিসেবে গৃহীত হয়। Gender Role, Gender Identity এবং Gender Fluidity এর মতো অনেক ধারণা ও পরিভাষা সরাসরি উনার কাছ থেকে নেওয়া। উনার মতে,

শৈশবের যৌন অভিজ্ঞতা যেমন তুলমামূলক ভাবে বয়স্ক কোন ব্যক্তির সাথে যৌন মিলন শিশুর জন্য নেতিবাচকই হবে এমন কোন কথা নেই।[1]ATTACKING THE LAST TABOO (Time Magazine, April 14, 1980.)

তিনি আরো বলেছিলেন,

ধরুন আমি যদি দেখি ১০ বা ১১ বছর বয়সের একটি ছেলে বিশের বা ত্রিশের কোঠার কোন পুরুষের প্রতি তীব্র শারীরিক আকর্ষণ বোধ করছে, যদি তাদের সম্পর্ক পারস্পরিক সম্মতির ভিত্তিতে হয়, তাদের বন্ধন যদি পারস্পরিক হয়, তাহলে আমার মতে এধরনের সম্পর্ককে কোন ভাবেই বিকারগ্রসথ বা অসুস্থ (pathological) বলা যায় না।[2]Interview: John Money. PAIDIKA: The Journal of Paedophilia, Spring 1991, vol. 2, no. 3, p. 5

আরেক বিখ্যাত গবেষক যিনি মূলত বায়োলজির অধ্যাপক ছিলেন Alfred Kinsey, সে বলে,

শিশুরা বয়স্ক সঙ্গী/সঙ্গীনীদের সাথে আনন্দদায়ক এবং উপকারী যৌনমিলন করতেই পারে এবং করা উচিত।

এই বিকৃত মস্তিষ্কধারী এও বলেছে,

“পিতামাতার উচিত ৬-৭ বছর বয়স থেকে শুরু করে শিশুদের মাস্টারবেট করানো এবং মিলেমিশে একসাথে মাস্টারবেট করা”[3]Kinsey, Sex and Fraud, page 3

আরেক সাইকলজিস্ট, সেক্সোলজিস্ট ও লাইবনিজ ইউনিভার্সিটি হ্যানোভারের প্রফেসর Helmut Kentler ওপেনলি পেডোফাইলকে সমর্থন করত, প্রাপ্তবয়স্ক এবং শিশুদের মধ্যে সমান এবং বৈষম্যহীন যৌন সম্পর্ককে গ্রহণযোগ্য বলে বিবেচনা করেছিল সে।[4]Helmut Kentler – Wikipedia

আমরা আমাদের সোকল্ড ডেবেলপ্ড ওয়েস্ট্রান কান্ট্রি বা ননমুসলিম কান্ট্রিগুলো যেমন অস্ট্রেলিয়া, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ইত্যাদি দেশগুলোতে দেখতে পাই শিশুকামিতা ও শিশুপর্ণগ্রাফির লিগালাইজেশনের জন্য বহু গ্রুপ বিভিন্ন চেষ্টা, আন্দোলন, কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।[5]Pedophile advocacy groups ; List of pedophile advocacy organizations ; Pedophile advocacy (wikipedia) এই গ্রুপগুলোতে অনেক ডাক্তার, সাইকলজিস্ট, রাইটার, জার্নালিস্ট রয়েছেন। অনেকটা সমকামী গ্রুপ LGBTQIA+ এর মত কার্যক্রম আরকি, কিন্তু আশ্চর্যের বিষয়তো এটা যে পেডোফাইল সমর্থকদের বিখ্যাত ব্যক্তিদের বেশির ভাগই সমকামী সমর্থক।

আবার গবেষকদের মতে ১৬ বছর বা ততোধিক বয়সী কোন ব্যক্তি যদি এমন কোন শিশুর প্রতি যৌন আকর্ষণ বোধ করে, যার সাথে তার বয়সের পার্থক্য অন্তত পাঁচ বছর, তবেই সেই ব্যক্তিকে শিশুকামী হিসেবে চিহ্নিত করা যাবে। অর্থাৎ কোন ১৫/১৭ বছরের ছেলে ১০/১৩ বছরের মেয়ের প্রতি যৌন আকর্ষণ বোধ করলে সেটা পেডোফিলিয়া বলে বিবেচিত হবে না![6]Diagnostic and Statistical Manual of Mental Disorders, Fourth Edition, 302.2 Pedophilia; DOI: 10.1176/appi.books.9780890423349.10311

কনসেন্টের বয়স! (Age of consent)

বিভিন্ন দেশে বিবাহের বয়স ১৮ হলেও তাদের আইন অনুসারে ১৬, কোথাও ১৫, কোথাও ১৪-তে কনসেন্ট এর ভিত্তিতে সেক্স বৈধ হয়ে যায় যদি পার্টনারের সাথে বয়সের পার্থক্য বেশি না হয়, আবার অনেক দেশে বয়সের পার্থক্য থাকার কোন শর্ত আরোপ করা হয়নি। কোথায় ১৬ এর নিচে সমবয়সি হলে যে কোন বয়সের কাপলদের মাঝে সেক্স বৈধ। কোন দেশে ১৬-১৮ বয়সীর পার্টার ৩০ এর কম হলে তাদের মাঝে সেক্স বৈধ। কোন দেশে কনসেন্টের বয়সের কারো সাথে বয়স্ক কারো সমকামিতা বৈধ। কোন দেশে অনুমতি সাপেক্ষে বৈধ। অল্প কয়েক বছর আগেও স্পেন, গায়ানা, কোস্টারিকা, বলিভিয়া, উরুগুয়ে ইত্যাদি দেশগুলোতে ১২, ১৩ বছরও এইজ অফ কনসেন্ট ছিল।[7]Age of consent-Defenses and exceptions ; Ages of consent in Asia ; Ages of consent in Europe ; Ages of consent by country (wikipedia) ; Legal minimum ages and the realization of adolescents’ rights , page 23-26 (UNICEF)

মজার বিষয়তো হচ্ছে উপরে উল্লেখিত এইজ অফ কনসেন্ট এর বয়সগুলোতো ২০০০ সালের পরবর্তী সময়কার। অথচ ১৯, ২০ শতকেও অসংখ্যা দেশ এমনকি ইউরোপ-অ্যামেরিকাতেও এইজ অফ কনসেন্ট ৭-১২ বছরের মধ্যে ছিল।[8]Age of Consent Laws [Table] , Age of Consent Laws (Children and Youth in History) ; Age of Consent in European & American History (Discover-The-Truth site) ;  PURITY CONGRESS MEETS (New York Time)  ভারতেও সাম্প্রতিক সময়ে এইজ অফ কনসেন্ট এর বয়স ১৮ থেকে কমিয়ে ১৬ করার কথা চলছে।[9] Opinion: Age Of Consent In India – What Is The Debate? (NDTV) ; India should consider lowering the age of consent (Hindustan Times) বিভিন্ন দেশে বর্তমানে যে এইজ অফ কনসেন্ট রয়েছে তা পরবর্তীতে গত ৬/৭শত বছরে এই বয়স বারবার ধাপে ধাপে পরিবর্তন হতে হতে বর্তমানের অবস্থায় এসেছে।[10] Age of consent reform (wikipedia) ; What Raising the Age of Sexual Consent Taught Women About the Vote (Smithsonian mag)

the Faculty of Public Health এর প্রেসিডেন্ট প্রফেসর John Ashton প্রস্তাব করেছিলেন যে age of consent ১৬ বছর থেকে কমিয়ে ১৫ বা এমনকি ১৪ বছর করা উচিত।[11] lowering the age of sexual consent (NCBI) এছাড়া উনার মত আরো বহুজন, বহু সংস্থা এই দাবিটি তুলেছিল বিভিন্ন যায়গায় বিভিন্ন যুক্তি, স্টাডি দেখিয়ে।[12]Should We Lower the Age of Consent to Protect Teenagers? (Slate site) ; Should the age of sexual consent be lowered? (NBC News) ; Sex educator says Ireland’s age of consent should be lowered (Sunday World) ; Whitehall study wanted age of consent lowered to 14 (The Guardian) ; Why lowering the age of consent to sexual and reproductive health services is beneficial for adolescents’ health … See Full Note যেখানে এইসব সোকল্ড উন্নত সভ্যতার জীবগুলো নিজেদের দেওয়া বয়সেই ঠিক মত একটা যুগ স্থির থাকতে পারে না, তাহলে সেখানে এসব জীবদের দেওয়া কনসেন্ট এর বয়সের মূল্যটা কি, ভিত্তিটা কি, গ্রহণযোগ্যতা কতটুকু!

বিয়ের বয়স! (Age of marriage)

কনসেন্ট এর বিষয়টাতো বাদই দিলাম, বর্তমানেও বহু দেশে বিবাহের বয়স ছেলে ও মেয়ে উভয়ের জন্য ২১। তার মানে এক দেশে কোন মেয়েকে ১৮ এর আগে বিবাহ করলে বাল্যবিবাহ, আবার আরেক দেশে ২১ এর আগে কোন মেয়েকে বিবাহ করলে বাল্যবিবাহ! কি আজব সব কর্মকাণ্ড তাই না![13] Marriageable Age (wikipedia) সর্ববৃহৎ জনসংখ্যার দেশ চিনে বিবাহের জন্য ছেলের মিনিমাম বয়স ২২ ও মেয়ের জন্য ২০[14] China’s Marriage Law: a model for family responsibilities and relationships (PubMed) , চিন্তা করে দেখুন আপনি কোন দেশের আইন মানবেন! এক দেশ থেকে আরেক দেশে গেলেই আপনি অপরাধী, আগে যে দেশে ছিলেন সে দেশে যেটা অপরাধ না পরে যেটাতে গিয়েছেন সেটাতে অপরাধ! কোথাও ১৮ এর আগে শিশু, কোথাও ২০ এর আগে শিশু, কোথাও ২২ এর আগে শিশু, আজিব যতসব লীলাখেলা!

ভারতে এক দিকে কনসেন্টের বয়স কমানোর কথা চলছে আরেক দিকে বিয়ের বয়স বাড়ানোর জন্য সুপ্রিম কোর্টে বিল পাশ হয়েছে।[15] Parliamentary panel examining bill to raise marriageable age for girls gets another extension (The Times of India) যদি এটা করা হয় তাহলে ১৬ এর আগে মিলন ঘটনাতে পারবে কনসেন্ট এর ভিত্তিতে এবং ২১ এর আগে বিয়ে দেওয়া যাবে না কারণ ২১ এর আগ পর্যন্ত সে পিউর নিষ্পাপ অবুঝ শিশু থাকবে সরকারের দৃষ্টিতে। এরপর পরবর্তী প্রজন্ম হয়তো বলবে পূর্ববর্তী প্রজন্ম ধর্ষক, শিশুকামি ছিল তাই ১৮ কে বিয়ের বয়স দিয়ে রেখেছিল।

যাইহোক সেক্যুলার ও নারীবাদীদের আইডল দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমান ২০২৩ সালে ৬/৭ রাজ্যে কোন বিয়ের বয়স নেই, ২৩টি রাজ্যে বিয়ের ন্যূনতম বয়স ১৬, ১০টি রাজ্যে ১৭, ২টি রাজ্যে ১৫। যে রাজ্যগুলোতে কোন বয়স নেই সেখানে মিনিমাম মেয়ের জন্য ১২ ও ছেলের জন্য ১৪ অলিখিত নিয়ম হিসেবে ধরা হয়ে থাকে। তারা এক দিকে এইজ অফ কনসেন্ট দিয়ে রেখেছে এক রকম, বিয়ের বয়সও কিছু রাজ্যে কম, আবার অপর দিকে ২০১৪ সালে ১৫-১৭ বছর বয়সীদের প্রায় ৫৮ হাজার ও ২০০০-২০১৮ পর্যন্ত প্রায় ৩ লক্ষ ১৮ বছরের কম সোকল্ড শিশু বিবাহ করায় তারা দুশ্চিন্তায় ঘুমাতে পারছে না।[16] Marriage age (wikipedia) ; About Child Marriage in the U.S. (Unchained site) ; Child marriage is rare in the U.S., though this varies by state (Pew Research)

UNICEF হতে ২০১৬ সাথে পাবলিশ হওয়া একটি তথ্যে দেখা গিয়েছে Latin America and the Caribbean দেশগুলোর মধ্যে ব্রাজিল, পেরু, ডমিনিকান, মেক্সিকো, গায়ানা, বলিবিয়া, কিউবা ইত্যাদি দেশগুলোতে ১৮ এর আগে আনুমানিক হার ২৫%, ১৮%, ২৯%, ২২%, ১৯%, ১৯%, ৩২% ইত্যাদি। এই দেশগুলোতে ১৫ এর আগে বিয়ের আনুমানিক হার ১১%, ২%, ১২%, ৫%, ৬%, ৩%, ৯% ইত্যাদি। ইউনিসেফের মতে লিগেল এইজ ১৮, কিন্তু এক্সেপশনের ক্ষেত্রে ১৬ বছরের আগে বিবাহ কোন মতেই বৈধ নয় (আইনের অনুমতি সাপেক্ষে)। কিন্তু LAC এর দেশগুলোতে বিশেষ পরিস্থিতির জন্য ২য় মিনিমাম বিয়ের বয়স ধার্য্য করা রয়েছে, সেটা হল মেয়েদের জন্য মিনিমাম বয়স ১৪ ও ছেলেদের জন্য প্রায় ১৫, কিছু দেশে আবার এটা ১২ বছর।[17]Legal minimum ages and the realization of adolescents’ rights , page 16-18 (UNICEF)

আরেকটা মজার তথ্য জানানো প্রয়োজন, বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে বহু মানুষ মনে করে বিবাহের জন্য উপযুক্ত বয়স হচ্ছে মেয়েদের জন্য ২৫ ও ছেলেদেরে জন্য ২৭।[18] Ideal Age for Marriage: 25 for Women and 27 for Men (Gallup site) মনে করেন আগামী ৫০ বা ১০০ বছর পর রাষ্ট্রীয়ভাবে এই বয়সটাকে বিবাহের বয়স করা হল ও সারা বিশ্বে এটাকে জেনারালাইজ্ড করা হয়ে গেল। তখন কি হবে! এখন যারা ১৮/২১ এ বিবাহের আইন করেছে, মানছে, এর পক্ষে বলছে তারা কি তখন পেডোফাইল হওয়ার তকমা খাবে? বিষয়টা বেশ আইরনিক। মনুষ্য তৈরি আইনকানুন যে কতটা গ্রহণযোগ্য, বাস্তবসম্মত, ভালো, যৌক্তিক তাতো এইসব দেখলেই প্রমাণ পাওয়া যায়।

১৮ এর নিচে যৌনসহবাসের হার (Sex rate under 18)

NYC Department of Education এর প্রাক্তন ডিরেকটর Fred Kaeser, Ed.D. জানান,

তার ২৫ বছরেরও বেশি সময়ের অভিজ্ঞতায় ১০ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলে তিনি বুঝতে পেরেছেন বর্তমান সময়ের শিশুরা বয়ঃসন্ধির আগেই সেক্স সম্পর্কে অনেক তথ্যের মুখোমুখি হচ্ছে ও ইনল্ফুয়েন্স হচ্ছে। আজকের কিশোর-কিশোরীদের প্রায় ৭% ১৩ বছর বয়সের আগে যৌন মিলন করেছে বলে রিপোর্ট করেছে। যখন তারা নবম শ্রেণীতে পড়ে (বয়স ১৪-১৫) তখন এটি ৩২% এর কাছাকাছি বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।[19] The Eight Most Important Things You Must Tell Your 10-Year-Old About Sex (Psychology Today site)

এটাতো উনার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা, কিন্তু বাস্তব চিত্র আরো ভয়ানক, যেমন ২০০০ সালের দিকের একটি রিপোর্টে দেখা গিয়েছে ২০% কিশোর-কিশোরী ১৩ বছরে বয়সে মৌখিক বা পূর্ণ যৌন মিলন ঘটিয়েছে।[20] Teenage sexual behaviour: attitudes towards and declared sexual activity (PubMed) ২০১৯ সালের একটি রিপোর্টে দেখা গিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের আনুমানিক প্রতি ১৩ জন ছেলের মধ্যে ১ জন ১৩ বছর বয়সের আগেই যৌনমিলন করেছে।[21] Nearly 1 in 13 US males reported having sex before age 13 (CNN) LAC এর দেশগুলোর মধ্যে বেশির ভাগ দেশে ২২% এর মত ছেলে-মেয়ে ১৫ বছরের নিচে প্রথম যৌনমিলন ঘটিয়েছে, কোন দেশে এর পরিমান ২৫, কোথায় ৩৫, কোথায় ৪৪%।[22]Legal minimum ages and the realization of adolescents’ rights , page 22-23 (UNICEF) ১৫ বছর বয়সে যৌনমিলনে জড়িয়ে পড়ার শতকরা পরিমাণটা বিভিন্ন দেশে বা স্থানে ভিন্ন ভিন্ন, কোন দেশে অনেক বেশি (আনুমানিক 50%) আবার কোন দেশে একদম কম। (আনুমানিক ৩%)[23] Adolescent sexuality – Behavior (wikipedia) ; List of Countries by Sex Ratio (Statistics Times site)

২০০১ সালের একটা রিপোর্টে দেখা গেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, ১৫-১৯ বছর বয়সী ৯% মহিলা প্রতি বছর গর্ভবতী হন, ৫% জন্ম দেয়, ৩% প্ররোচিত গর্ভপাত করে এবং ১% এর গর্ভপাত বা মৃত সন্তান জন্ম হয়। এই পরিমাণটা ২০০৬ সালে ৩% ও ২০০৭ সাথে ১% বৃদ্ধি পায়।[24] Adolescent pregnancy trends and demographics ; Reasons for and challenges of recent increases in teen birth rates: a study of family planning service policies and demographic changes at the state level (PubMed)

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ১৯৮৬ সালে গর্ভবতী হওয়া এক মিলিয়ন কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে ৪০% গর্ভপাত বেছে নিয়েছিল এবং বাকিদের মধ্যে ৬১% অবিবাহিত ছিল। বেশি সংখ্যক অল্প বয়সী কিশোরী মায়েরা তাদের সন্তানদের লালন-পালন এবং বড় করা সিদ্ধান্ত বেছে নিয়েছিল। মোট গর্ভবতীর ৩৮% ছিল আনুমানিক ১২-১৭ বছর বয়সী।[25] Adolescent pregnancy in the United States: a review and recommendations for clinicians and research needs (PubMed)  ২০০০ সালের পরবর্তী একটি রিপোর্টে দেখা গেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি বছর ৯ লক্ষেরও বেশি কিশোরী গর্ভবতী হয় যার মেজরিটির বয়স ২০ এর কম এবং অবিবাহিত।[26] An Innovative Online Positive Psychology Training Addressed to Pregnant Youth (Research Gate)

২০১০-১৪ সালের মধ্যে ১৫-১৯ বছর বয়সী কিশোরীদের প্রতি ১০০০ নারীর মধ্যে আর্জেন্টিনায় ৫৫ জন, কানাডায় ১৪ জন, চিলিতে ৫৫ জন, মেক্সিকোতে ৬৩ জন, নিকারাগুয়ায় ১০১ জন, স্পেনে ১১ জন, যুক্তরাজ্যে ২৬ জন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৩১ জন সন্তান জন্ম দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে কিশোর জন্মহার ৫২.১ যা উন্নত বিশ্বের মধ্যে সর্বোচ্চ, এবং যুক্তরাজ্যে ৩০.৮ যা ইউরোপের মধ্যে সর্বোচ্চ। আর এদের বেশির ভাগই অবিবাহিত।[27] An Innovative Online Positive Psychology Training Addressed to Pregnant Youth (Research Gate)

২০১৩ সালে University of Virginia-র আন্ডারে National Marriage Project এর একটা ক্যাম্পেইন হয় – ‘National Campaign to Prevent Teen and Unplanned Pregnancy’. তারা একটা রিপোর্ট করে যেখানে দেখা যায়: ২৫ বছর বয়সে, ৪৪% নারীর প্রথম সন্তান হয়। কিন্তু ২৫ বছর বয়সে প্রথম বিয়ে করে ৩৮% নারী। প্রথম শিশুদের ৪৮% হল কুমারী মায়ের সন্তান। কুমারী মায়েদের ২৩% টিনেজার। ৬০% এর বয়স ২০-এর ঘরে। এসব থেকে চমকপ্রদ একটা ফল এসেছে – আগের যুগে যে বয়সে তরুণ-তরুণীরা বিয়ে করত, ঠিক একই বয়সে এখন তারা প্রথম লিভ-টুগেদারে প্রবেশ করছে। পার্থক্য এটাই যে, আগে বিয়ে করত, এখন করে না, আগে দায়িত্ব নিত, এখন নেয় না।[28]Knot Yet: The Benefits and Costs of Delayed Marriage in America (The National Marriage Project site)

এই উন্নত সভ্যতার জীবরা এক দিকে ১৮/২১ কে বিয়ের বয়স নির্ধারণ করে, এর কমে বিয়েকে বাল্যবিবাহ নাম দিয়ে অপরাধ হিসেবে সবার কাছে উপস্থাপন করেছে। আবার তারাই কনসেন্টের ভিত্তিতে সেক্স, লিভ টু গেদারের ক্ষেত্রে গিয়ে ভিন্ন কথা বলছে! ভিন্ন নিয়ম, রীতি বানিয়ে রেখেছে, ভিন্ন আইডিওলজি পালন করছে! এটা স্পষ্ট ডাবল স্ট্যান্ডার্ড ছাড়া আর কিছুই না, এই দ্বিমুখী মানুষদের নীতিতে আমরা কেন চলব? তাদের নীতি কেন অনুসরণ করব? তাদের নীতি যে কতটা বাস্তবসম্মত তাতো এসব থেকেই টের পাওয়া যাচ্ছে।

চিন্তা করে দেখুন যেই দেশে ১২-১৮ বছর বয়সে অহরহ সেক্স চলে, যেই দেশে এই বয়সে সম্মতিতে বিবাহ ছাড়া সেক্স করা, লিভ টুগেদার বৈধ সেই দেশে কি করে ১৮ এর আগে বিবাহ করলে সমস্যা হয়? এই নিয়ম কীসের ভিত্তিতে? বিয়ে করলেই কেন সমস্যা হয়? বিবাহ ছাড়া সেক্স করাতে কোন আপত্তি নেই কেন তাদের? যে বয়সে সহবাস করা বৈধ সেই বয়সে বিয়ে করা অবৈধ কেন? সে বয়সে বিয়ে করা ঠিক না হলেও লিভ টুগেদার কীভাবে ঠিক হয়? সেক্স করা কীভাবে ঠিক হয়? ১৮ এর আগে বিয়ে করলে তারা অ্যাকশন নেয়, কিন্তু লিভ টুগেদার করলে, সেক্স করলে কেন কোন অ্যাকশন নিতে দেখা যায় না কেন? আছে এসব প্রশ্নের কোন উত্তর? সবাই শুধু বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ করতে চায়, কিন্তু কেউ বাল্যসেক্স প্রতিরোধ করার চেষ্টা করে না। তাদের নীতি হল শুধু বাচ্চা না নেওয়া ছাড়া যা খুশি কর।

বিয়ে করে বাচ্চা কনসিভ করা নিয়ে অনেকে অনেক ভুংভাং বলবেন, লজিক দিবে, রিস্কের কথা বলবে, রিসার্চ পেপার দেখাবে। কিন্তু সেই লোকগুলোই আবার অ্যাবরশন করে একটা জীবনকে হত্যা করা, পিল খাওয়া, বিকৃত যৌনাচারসমূহকে প্রমোট করে, কিন্তু কেন? এসবের কি কোন রিস্ক নেই? সাইড ইফেক্ট, ক্ষতি নেই?

সেক্যুলার, নারীবাদীরা দাবি করে বিয়ের জন্য শারীরিক ও মানসিক ভাবে ম্যাচিউর হতে হয়, তাই তারা ১৮ কে একটা নির্দিষ্ট বয়স ধরে নিয়েছে যে বয়সে দুটো কন্ডিশনই পূরন হয়। কিন্তু এমনও বহু নারী রয়েছে আমাদের সমাজে যারা ১৮তে শারীরিক ভাবে ম্যাচিউর হলেও দেখা যায় মানসিক ভাবে ম্যাচিউর না, আবার মানসিক ভাবে ম্যাচিউর হলেও হয়তো শারীরিক ভাবে ‍উপযুক্ত না। তাহলে তাদের কি হবে? তাদেরকে ১৮ বছর বয়সে বিবাহ দেওয়ার পর যদি কোন ক্ষতি হয় তাদের তাহলে দোষটা কার হবে? আইনের চোখেতো এই বিবাহ বৈধ কিন্তু নৈতিক দিক দিয়ে কি এই বিবাহ বৈধ?

ইসলামে বিবাহ

বাল্যবিবাহ নিয়ে ইসলাম কি বলে? ইসলাম অল্প বয়সে (মেয়েদের ৯-১২/১৩ বছর বয়সে উপযুক্ত হলে) বিবাহ জায়েজ করেছে, বৈধ বলেছে। এই বয়সে মেয়েদের বিবাহ করাকে নফল, সুন্নত, ওয়াজিব বা ফরজ করা হয়নি, শুধু জায়েজ করেছে। আর কম বয়সে বাচ্চা নেওয়ার বিষয়েতো ফরজ-ওয়াজিবতো অনেক দূরের বিষয়, আলাদা করে জায়েজ-নাজায়েজ কিছুই বলেনি। সেহেতু সোকল্ড উন্নত দেশের ১৮ এর নিচের অবুঝ, নিষ্পাপ বাচ্চাদের বাচ্চা হওয়া ছাড়া সেক্সকে মেনে নিতে পারলে, এখানে বাচ্চা নেওয়া ছাড়া যদি বিবাহ করা হয় তাহলে তা কেন মেনে নিতে পারবে না? ইসলাম আপনাকে অল্প বয়সে (মেয়েদের ৯-১৩/১৪ বছর বয়সে) বাচ্চা নিতেও (চেষ্টা করতে) বলে না, আবার মানাও (চেষ্টা করতে) করে না, নেওয়া জায়েজ বা নাজায়েজ এই বিষয়ে কোরআন ও হাদিসে স্পষ্ট বলা হয় নি সেহেতু বাচ্চা নেওয়া বা না নেওয়া নিছকই আপনার ব্যক্তিগত বিষয়। বস্তুত আল্লাহই একমাত্র সন্তান দেওয়ার মালিক, কিন্তু চেষ্টা করা না করার ক্ষমতাতো মানুষকে দেওয়া হয়েছে। সেহেতু এই বয়সে সন্তান নেওয়া বা না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া নিছক ব্যক্তির নিজের উপর।

কিন্তু তারপরও ইসলামে বিয়ের শর্ত রয়েছে। যেমন শারীরিক ভাবে উপযুক্ত হওয়া, মেয়ের সম্মতি থাকা, মেয়ের অভিভাবকের সম্মতি থাকা, মেয়ের ক্ষতি না হওয়া। আর উপদেশের মধ্যে রয়েছে দ্বীনদারিতা, কুফু, পছন্দ অপছন্দ ইত্যাদি বিবেচনা করা। এই সমস্ত আলোচনার পর আমি বলব, সেকুলার আইন দিয়ে ইসলামকে বিচার করতে আসবেন না, সেকুলার বয়স দিয়ে ইসলামে বাল্যবিবাহ আছে বলে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করা বাদ দিন। কারন সেকুলারদের বানানো আইনে ইসলাম চলে না, সেকুলারদের দৃষ্টিতে, নীতিতে ইসলামে বাল্যবিবাহ জায়েজ, যেমন এক দেশের আইন অনুসারে আরেক দেশের মানুষ অপরাধী।

মেয়ের ক্ষতি না হওয়া

হাদিসে এসেছে,

ইবনে আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (ﷺ) বলেছেনঃ ক্ষতি করাও যাবে না, ক্ষতি সহাও যাবে না।[29]ইবনে মাজাহ ২৩৪১; দারাকুতনী ৩০৬০; ৪৪৯৩-৯৫; মু’জামুল আওসাত ৩৭৭৭, ৫১৫৩

খতিব শিরবিনি (রহ) বলেছেন, 

“কোনো নারীর সাথে সহবাস হারাম হবে যদি সে এই ব্যাপারে সামর্থ্য না রাখে, এই কাজের জন্য অল্পবয়স্ক হয়, অসুস্থ থাকে, রোগা-পাতলা হয় অথবা অনুরূপ কোনো কারণে যাতে তার ক্ষতি হয়।”[30]মুগনি আল মুহতাজ ৪/৩৭৩

ইয়াহইয়া বিন আবি আল-খায়ের ওমরানী (রহ) বলেন,

অল্পবয়স্ক কন্যার ক্ষেত্রে যদি তাকে ক্ষতি না করে তার সাথে সঙ্গম করা সম্ভব হয় তবে তা করার অনুমতি রয়েছে। আর যদি তাকে ক্ষতি করা ব্যতীত তার সাথে সহবাস করা সম্ভব না হয় তবে তার সাথে সহবাস করা জায়েজ নয়।[31]কিতাবুল বায়ান ফি মাজহাব আল ইমাম আল শাফেয়ী ৯/৪৯৬

একই কথা আরো পবেন ইমাম নববী (রহ)-এর কিতাবে[32]আল-মাজমু শরহুল মুহাদ্দাব, ১৬/৪০৯, ইমাম বাহুতি (রহ)-এর কিতাবে[33]কাশশাফ আল কিনা ১২/৭০-৭২, শেখ সামির আল-মালিকিসহ আরো বহু ওলামাদের কিতাবে।[34]আরশীফ মুলতাক্বা আহলিল হাদীছ -১, ১১১/৩৫৭

শারীরিক ভাবে উপযুক্ত হওয়া

কোরআনে আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা বলেন,

আর ইয়াতিমদেরকে যাচাই করবে যে পর্যন্ত না তারা বিয়ের যোগ্য হয়; অতঃপর তাদের মধ্যে ভাল–মন্দ বিচারের জ্ঞান দেখতে পেলে তাদের সম্পদ তাদেরকে ফিরিয়ে দাও। [সূরা নিসা আয়াত ৬]

ইমাম নববী (রহ) বলেন, 

ইমাম মালিক, শাফেঈ এবং আবু হানিফা বলেছেন: উক্ত মহিলার সঙ্গে বাসর তখনই করা যাবে যখন তার সহবাসে সক্ষমতা আসবে, তবে এটা মহিলা ভেদে ভিন্ন হতে পারে। তাই কোন বয়স সীমা নির্ধারণ করা যাবে না। এটাই সঠিক দৃষ্টিভঙ্গি।”[35]শরহে মুসলিম, ইমাম নববী, ৯/২০৬

ফতুয়ায়ে হিন্দিয়াতে বলা হয়েছে,

জমহুর উলামায়েকেরাম বলেছেন যে বয়স কোন ব্যাপার না। যেটা গুরুত্বপূর্ণ সেটা হল সামর্থ্য। যদি সে বড় এবং সাস্থ্যবান হয়, পুরুষদের সাথে সহবাসের সামর্থ্য রাখে এবং এর (যৌনতার কারনে) কারনে অসুস্থ না হওয়ার আশঙ্কা থাকে, তবে স্বামী তার সাথে সহবাস করতে পারে যদিও তার বয়স এখনও নয় বছর না হয়। কিন্তু যদি সে রোগা এবং দুর্বল হয়, এবং সহবাসের সামর্থ্য না থাকে, এবং এতে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে, তাহলে বয়স হলেও স্বামীর জন্য তার বিয়ে সম্পন্ন (সহবাস, নিজ গৃহে আনা ও অন্যান্য বিয়ের বিষয় সম্পন্ন করার মাধ্যমে) করার অনুমতি নেই। এটি সঠিক দৃষ্টিভঙ্গি।[36]ফতুয়ায়ে হিন্দিয়া ১/২৮৭

অবশ্যই মুসলিম উম্মাহর ইজমা মতে পিতার জন্য অনুপযুক্ত নাবালেগ মেয়েকে বিবাহ দেওয়া জায়েজ কিন্তু তার জন্যও শর্ত রয়েছে। মুসলিম ফকিহদের বক্তব্য থেকে এটি স্পষ্ট যে, অল্পবয়স্ক বালিকার বিয়ের বিষয়টি প্রাধান্যযোগ্য সুস্পষ্ট উপকারিতা, কল্যাণের উপর নির্ভরশীল। যদি এমন সুস্পষ্ট উপকারিতা ও কল্যাণময় কিছুর সম্ভাবনা থাকে, তাহলে তার অভিভাবকেরা বিয়ের ব্যবস্থা করতে পারেন।[37] ইসলাম ও বাল্যবিবাহ উল্লেখ্য যে জমহুর ওলামাগণ বলেছেন কোন মেয়েকে সাবালিকা হওয়ার আগে তার পিতা ব্যতিত অন্য কারো অধিকার নেই বিবাহ করতে বাধ্য করার, এমনকি আপন রক্তের অভিভাবকদেরও এই অধিকার নেই।[38]ইবনে কুদামাহ আল-মুগনি ৯/৪০২

মেয়ের সাথে সহবাস করার ক্ষেত্রে, শুধু মাত্র বিবাহের চুক্তির দ্বারাই এটি বৈধ হয়ে যায় না। ইমাম নববী (রহ) নিজের কিতাবে স্পষ্ট করেন স্বামী তার সাথে সহবাস করবে না যতক্ষন না সে সঙ্গমের জন্য উপযুক্ত হয়, স্ত্রী উপযুক্ত না হলে সঙ্গম করার অনুমতি নেই। তিনি আরো বর্ণনা করেন, 

ইমাম শাফেয়ী ও তার অনুসারীদের মতে পিতা ও অভিভাবকদের জন্য সর্বোত্তম হল যে, কুমারীকে বিয়ে না করানো যতক্ষণ না সে বয়ঃসন্ধিতে না পৌঁছায়।[39]শরহে মুসলিম, ইমাম নববী, ৯/২০৬

আল বাগাভী (রহ) বলেন,

“এ বিষয়ে আলেমদের ঐক্যমত রয়েছে যে, পিতার জন্য তাদের যুবতী কন্যাদের বিবাহ করা জায়েয যদিও তারা এখনও দোলনায় থাকে, তবে স্বামীদের জন্য এটি জায়েয নয় তাদের সাথে বিবাহ সম্পন্ন করা (স্ত্রীকে নিজ গৃহে আনা, সহবাস করা), যদি না তারা প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষদের সাথে যৌন মিলনের জন্য শারীরিকভাবে উপযুক্ত হয়।”[40]Child marriage in Islam

ইবনে বাত্তাল (রহ) বলেন,

উলামায়ে কেরাম সর্বসম্মতিক্রমে একমত যে পিতাদের জন্য তার ছোট কন্যাকে বিবাহ দেওয়া জায়েয, যদিও সে দোলনায় থাকে, তবে তার স্বামীর জন্য তার সাথে সহবাস করা জায়েয নয়। যতক্ষণ না সে সহবাসের উপযুক্ত হয়।[41]সহীহ বুখারী লিইবনে বাত্তাল ৭/১৭২

উল্লেখ্য যে, যে হাদিসগুলোতে স্বামীর ডাকে সারা দেওয়াকে বাধ্যতামূলক করা হয়েছে সেগুলো অনুপযুক্ত মেয়ের উপর প্রযোজ্য হবে না। কারণ হাদিসে এসেছে নাবালেগ ও মানসিক ভাবে অসুস্থ ব্যক্তির উপর শরীয়তের হুকুম-আহকাম প্রযোজ্য হয় না।[42]ইবন মাজাহ ২৫৪১; মিশকাত ৩২৮৭-৩২৮৮; সুনানে আবু দাউদ ৪৩৪৬-৫১, ৪৩৯৮-৪৪০৬; দারেমী ২২৯৬, ইরওয়াহ ২৯৭; আল-হাকিম ফিল মুসতাদরাক ৪/৩৬৫; আল-মুসনাদুল জামে ১৩/২৮৪-২৮৭ এর উপর ভিত্তি করে ফকিহগণ বলেছেন নাবালীকা নারীর জন্য স্বামীর ডাকে সাড়া দেওয়া বাধ্যতামূলক নয় এবং এতে তার কোন গুনাও হবে না।[43]কিতাবুল বায়ান ফি মাজহাব আল ইমাম আল শাফেয়ী ৯/৪৯৬; কাশশাফ আল কিনা ১২/৭০-৭২ এবং প্রায় সকল ফকিহরাই এব্যাপারে সর্বসম্মতিক্রমে একমত যে, স্বামীদের জন্য অপ্রাপ্ত-বয়স্ক সহবাসের অনুপযুক্ত বা অন্য কোন কারনে সহবাসের জন্য অনুপযোগী স্ত্রীর সাথে সহবাস করা নিষিদ্ধ।[44]মাওসুয়াতুল ফিকহিয়াতিল কুয়েতিয়াহ ৩০/১২৩; কিতাবুল বায়ান ফি মাজহাব আল ইমাম আল শাফেয়ী ১১/১৯৩; তাবিন আল হাকিকাত, ৩/৫২; ফাতহুল বারী শরহে বুখারী ৯/১২৪; উমদাতুল … See Full Note

মেয়ের ও তার অভিভাবকের সম্মতি

ইসলামে মেয়েকে জোর করে তার অসম্মতিতে বিবাহ দেওয়া নিষিদ্ধ, প্রতিটি নারীরই সম্মতি নেওয়া লাগবে। এই ক্ষেত্রে কুমারীরা লজ্জাবসত বহু সময় সরাসরি মুখ ফুটে সম্মতি দিতে পারে না, সেই জন্য তাদের ক্ষেত্রে তাদের নিরবতাকেই সম্মতি হিসেবে গ্রহণ করা হবে।[45]সহীহ বুখারী ৫১৩৬, ৬৯৬৮-৭০;  মুসলিম ১৪১৯-২১; তিরমিযী ১১০৭-০৮; নাসায়ী ৩২৬০-৭০; আহমাদ ১৮৮৮-৯১, ২১৬৪, ২৩৬১, ২৪৭৭, ৩০৭৭, ৩২১২, ৩৩৩৩, ৩৪১১, ১৭২৬৯; মুয়াত্তা মালেক ৮৮৮, … See Full Note মেয়ের সম্মতির পাশাপাশি অভিভাবকের সম্মতি থাকাও ইসলামে জরুরি। যদিও এই বিষয়ে কিছুটা মতভেদ রয়েছে কিন্তু বিশুদ্ধ মত হল অভিভাবকের সম্মতিও প্রয়োজন।[46]তিরমিযী ১১০২; আবূ দাউদ ২০৮৩; আহমাদ ২৩৮৫১, ২৪৭৯৮; দারেমী ২১৮৪; ইরওয়াহ ১৮৪০; মিশকাত ১৩৩১ কিন্তু যদি মেয়ের অসম্মতিতে বিবাহ দেওয়া হয় তাহলে মেয়ে চাইলে পরবর্তীতে বিবাহ বিচ্ছেদ করে ফেলার অধিকার রাখে। কারণ রাসূল (ﷺ) এর জামানায় যখন কোন নারীকে জোর করে তার অসম্মতিতে বিবাহ দেওয়া হয়েছিল তখন রাসূল তাদেরকে বিচ্ছেদের ইখতিয়ার দিয়েছিলেন ও তাদের পছন্দ যেখানে সেখানে তাদের বিবাহের ব্যবস্থা করেছিলেন। সেই সমস্ত ঘটনাগুলোর উপর ভিত্তি করে ওলামাগণ বলেছেন জোর করে বিবাহ দিলে সে (নারীটি) কুমারি হোক বা বিবাহিত হোক বিষয়টাকে সে আদালত পর্যন্ত নিয়ে অভিযোগ করলে নারীর কোন দোষ হবে না, বরং নারীর অভিযোগ ঠিক হলে রায় তার পক্ষেই দিতে হবে।[47]সহীহুল বুখারী ৫১৩৮-৩৯, ৬৯৪৫, ৬৯৬৯; আহমাদ ২৪৬৫, ৬১০১, ২৬২৪৬-৫১; মুয়াত্তা মালেক ১১৩৫; দারেমী ২১৯১-৯২; রওদুন নাদীর ৪২৩-২৩; ইরওয়াহ ১৮৩৫; ইবনে মাজাহ ১৮৭৪-৭৮; … See Full Note

অধিকাংশ ওলামাদের মতে (ইমাম মালেক, শাফেয়ী, আবু উবাইদ, ইবনে আবি লায়লা, আল সাওরী, ইবনে হাযম, ইবনে কুদামা, সুফিয়ান ইত্যাদি) সাবালিকা না হওয়া পর্যন্ত ইয়াতীম (পিতাহীন) কুমারী কন্যাকে বিয়ে দেওয়া ও বিয়ে করার অধিকার কারো নেই। আহমদ, ইসহাকের, ইবনে তাইমিয়ার মতে মিনিমাম ৯ বছর হলেই ইয়াতিম কন্যাকে বিয়ে দেওয়া যাবে এবং যেকোন মেয়ের ক্ষেত্রেই ৯ বছর হলে তার অনুমতি নেওয়া বাধ্যতামুলক বিয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে।[48]সুনানে তিরমিজি ১১০৯; ইমাম নববী শরহে মুসলিম ৯/২০৬; আরশীফ মুলতাক্বা আহলিল হাদীছ -১, ১১১/৩৫৭-৩৫৯

এই শর্তগুলোর আলোকে কোন মেয়ে ১০ বছর বয়সেও উপযুক্ত হতে পারে, কেউ ১৩, কেউ ১৫, কেউ ১৮ তেও উপযুক্ত হতে পারে। ইসলামের এই নীতিতে মধ্যে সেক্যুলারদের বানানো নীতির মত কোন কন্ট্রাডিকটরি নেই, বারবার পরিবর্তন করার কোন প্রয়োজন নেই। এক প্রজন্ম আরেক প্রজন্মকে কটু কথা বলার মত কোন সুযোগ নেই। এই বিষয়ে তাদের এত বেশি দ্বিমুখীতা নিজেদের বানানো নিয়মেই, এক দেশের নিয়ম, নীতি, আইডিওলজি, বিশ্বাস, আইন আরেক দেশের সাথে এত বেশি ভিন্ন, তারপরও এক দেশের সাথে আরেক দেশের এই নিয়ম নিয়ে কোন দ্বন্দ্ব, ঝামেলা, মারামারি, হানাহানি, অভিযোগ, আপত্তি নেই, তাহলে ইসলামের সাথেই কেন সমস্যা? অথচ তাদের চাইতে বেটার ও স্টেবল নীতি দিচ্ছে ইসলাম। তাহলে সমস্যাটা ইসলাম ও ইসলামের দেওয়া নীতি নিয়েই কেন?

লেখকঃ আশরাফুল নাফিজ

আরবি অনুবাদ এবং ফীক্বহে বিশেষ সহায়তা করেছেনঃ শরীফুল ইসলাম (হাফি)

 

    Footnotes

    Footnotes
    1ATTACKING THE LAST TABOO (Time Magazine, April 14, 1980.)
    2Interview: John Money. PAIDIKA: The Journal of Paedophilia, Spring 1991, vol. 2, no. 3, p. 5
    3Kinsey, Sex and Fraud, page 3
    4Helmut Kentler – Wikipedia
    5Pedophile advocacy groups ; List of pedophile advocacy organizations ; Pedophile advocacy (wikipedia)
    6Diagnostic and Statistical Manual of Mental Disorders, Fourth Edition, 302.2 Pedophilia; DOI: 10.1176/appi.books.9780890423349.10311
    7Age of consent-Defenses and exceptions ; Ages of consent in Asia ; Ages of consent in Europe ; Ages of consent by country (wikipedia) ; Legal minimum ages and the realization of adolescents’ rights , page 23-26 (UNICEF)
    8Age of Consent Laws [Table] , Age of Consent Laws (Children and Youth in History) ; Age of Consent in European & American History (Discover-The-Truth site) ;  PURITY CONGRESS MEETS (New York Time) 
    9 Opinion: Age Of Consent In India – What Is The Debate? (NDTV) ; India should consider lowering the age of consent (Hindustan Times)
    10 Age of consent reform (wikipedia) ; What Raising the Age of Sexual Consent Taught Women About the Vote (Smithsonian mag)
    11 lowering the age of sexual consent (NCBI)
    12 Should We Lower the Age of Consent to Protect Teenagers? (Slate site) ; Should the age of sexual consent be lowered? (NBC News) ; Sex educator says Ireland’s age of consent should be lowered (Sunday World) ; Whitehall study wanted age of consent lowered to 14 (The Guardian) ; Why lowering the age of consent to sexual and reproductive health services is beneficial for adolescents’ health and wellbeing (APHRC site) ; should the age of consent be lowered to fourteen (Kialo site)
    13 Marriageable Age (wikipedia)
    14 China’s Marriage Law: a model for family responsibilities and relationships (PubMed)
    15 Parliamentary panel examining bill to raise marriageable age for girls gets another extension (The Times of India)
    16 Marriage age (wikipedia) ; About Child Marriage in the U.S. (Unchained site) ; Child marriage is rare in the U.S., though this varies by state (Pew Research)
    17Legal minimum ages and the realization of adolescents’ rights , page 16-18 (UNICEF)
    18 Ideal Age for Marriage: 25 for Women and 27 for Men (Gallup site)
    19 The Eight Most Important Things You Must Tell Your 10-Year-Old About Sex (Psychology Today site)
    20 Teenage sexual behaviour: attitudes towards and declared sexual activity (PubMed)
    21 Nearly 1 in 13 US males reported having sex before age 13 (CNN)
    22Legal minimum ages and the realization of adolescents’ rights , page 22-23 (UNICEF)
    23 Adolescent sexuality – Behavior (wikipedia) ; List of Countries by Sex Ratio (Statistics Times site)
    24 Adolescent pregnancy trends and demographics ; Reasons for and challenges of recent increases in teen birth rates: a study of family planning service policies and demographic changes at the state level (PubMed)
    25 Adolescent pregnancy in the United States: a review and recommendations for clinicians and research needs (PubMed)
    26 An Innovative Online Positive Psychology Training Addressed to Pregnant Youth (Research Gate)
    27 An Innovative Online Positive Psychology Training Addressed to Pregnant Youth (Research Gate)
    28Knot Yet: The Benefits and Costs of Delayed Marriage in America (The National Marriage Project site)
    29ইবনে মাজাহ ২৩৪১; দারাকুতনী ৩০৬০; ৪৪৯৩-৯৫; মু’জামুল আওসাত ৩৭৭৭, ৫১৫৩
    30মুগনি আল মুহতাজ ৪/৩৭৩
    31কিতাবুল বায়ান ফি মাজহাব আল ইমাম আল শাফেয়ী ৯/৪৯৬
    32আল-মাজমু শরহুল মুহাদ্দাব, ১৬/৪০৯
    33কাশশাফ আল কিনা ১২/৭০-৭২
    34আরশীফ মুলতাক্বা আহলিল হাদীছ -১, ১১১/৩৫৭
    35শরহে মুসলিম, ইমাম নববী, ৯/২০৬
    36ফতুয়ায়ে হিন্দিয়া ১/২৮৭
    37 ইসলাম ও বাল্যবিবাহ
    38ইবনে কুদামাহ আল-মুগনি ৯/৪০২
    39শরহে মুসলিম, ইমাম নববী, ৯/২০৬
    40Child marriage in Islam
    41সহীহ বুখারী লিইবনে বাত্তাল ৭/১৭২
    42ইবন মাজাহ ২৫৪১; মিশকাত ৩২৮৭-৩২৮৮; সুনানে আবু দাউদ ৪৩৪৬-৫১, ৪৩৯৮-৪৪০৬; দারেমী ২২৯৬, ইরওয়াহ ২৯৭; আল-হাকিম ফিল মুসতাদরাক ৪/৩৬৫; আল-মুসনাদুল জামে ১৩/২৮৪-২৮৭
    43কিতাবুল বায়ান ফি মাজহাব আল ইমাম আল শাফেয়ী ৯/৪৯৬; কাশশাফ আল কিনা ১২/৭০-৭২
    44মাওসুয়াতুল ফিকহিয়াতিল কুয়েতিয়াহ ৩০/১২৩; কিতাবুল বায়ান ফি মাজহাব আল ইমাম আল শাফেয়ী ১১/১৯৩; তাবিন আল হাকিকাত, ৩/৫২; ফাতহুল বারী শরহে বুখারী ৯/১২৪; উমদাতুল কারী শরহে বুখারী ২০/৭৮; আউদাতুল হিজাব ২/৩৩০
    45সহীহ বুখারী ৫১৩৬, ৬৯৬৮-৭০;  মুসলিম ১৪১৯-২১; তিরমিযী ১১০৭-০৮; নাসায়ী ৩২৬০-৭০; আহমাদ ১৮৮৮-৯১, ২১৬৪, ২৩৬১, ২৪৭৭, ৩০৭৭, ৩২১২, ৩৩৩৩, ৩৪১১, ১৭২৬৯; মুয়াত্তা মালেক ৮৮৮, ১১১৪; দারেমী ২১৮৬-৯০, ২২৩৮; ইরওয়াহ ১৮২৮, ৩৩-৩৬; ইবনে মাজাহ ১৮৭০-৭২
    46তিরমিযী ১১০২; আবূ দাউদ ২০৮৩; আহমাদ ২৩৮৫১, ২৪৭৯৮; দারেমী ২১৮৪; ইরওয়াহ ১৮৪০; মিশকাত ১৩৩১
    47সহীহুল বুখারী ৫১৩৮-৩৯, ৬৯৪৫, ৬৯৬৯; আহমাদ ২৪৬৫, ৬১০১, ২৬২৪৬-৫১; মুয়াত্তা মালেক ১১৩৫; দারেমী ২১৯১-৯২; রওদুন নাদীর ৪২৩-২৩; ইরওয়াহ ১৮৩৫; ইবনে মাজাহ ১৮৭৪-৭৮; মুসান্নাফ ইবন আবী শাইবাহ: ৪/৯৪; ফাতাওয়া নূরুন ‘আলাদ দারব, ২২/৯৩-৯৪; বিন বায, মাজমূউল ফাতাওয়া, ৯/৪৫৯-৪৬০, ২১/৭৬-৭৭; ফতোয়া লাজনা দায়েমা ১৮/১৪৭, ১৬৮; আরশীফ মুলতাক্বা আহলিল হাদীছ-১, ১১১/৩৬৫
    48সুনানে তিরমিজি ১১০৯; ইমাম নববী শরহে মুসলিম ৯/২০৬; আরশীফ মুলতাক্বা আহলিল হাদীছ -১, ১১১/৩৫৭-৩৫৯
    Show More

    Ashraful Nafiz

    আমি একজন সাধারন মুসলিম ছাত্র যে আল্লাহর দেওয়া কল্যানময় জ্ঞান অর্জনে আগ্রহি এবং সেই জ্ঞান মানুষের মাঝে পৌছানোর প্রত্যাশী।
    5 1 vote
    Article Rating
    Subscribe
    Notify of
    guest
    0 Comments
    Inline Feedbacks
    View all comments
    Back to top button