খ্রিস্টধর্ম

‘গসপেল অব মার্ক’ লেখকের ২৪টি ভুল

১. মার্ক 1:1 —

”ঈশ্বরের পুত্র যীশু খ্রীষ্টের বিষয়ে সুখবরের আরম্ভ।,,

✪ কেন মার্ক, মথি এবং লূকের মতো যিশুর কোনও বংশতালিকা দেওয়া বাদ হলো?

সমস্যা: মথি (অধ্যায় 1) এবং লুক (অধ্যায় 3 ) উভয়ই যীশুর পূর্বপুরুষের পরিচয় দেন (মথি. 1:1 দেখুন )। যাইহোক, মার্ক কোন বংশ পরিচয় প্রদান করে না। এটা কেন বাদ দেওয়া হলো এটা আমাদের বুঝতে অনেক অসুবিধা হচ্ছে। এটার ব্যাখ্যা কোনো খ্রিস্টানদের কাছে আছে কি ?

২. মার্ক 1:2 —
2.,”নবী যিশাইয়ের বইয়ে ঈশ্বরের বলা এই কথা লেখা আছে।,,

✪ কিভাবে এই পুরাতন নিয়মে ভবিষ্যদ্বাণীর মার্কের ভুল উদ্ধৃতি ন্যায়সঙ্গত হতে পারে?

সমস্যা: মার্ক মালাকিকে ভুল উদ্ধৃত করেছেন, যেমনটি তির্যক শব্দ দ্বারা নির্দেশিত।আমাদের মনে হচ্ছে মার্ক লেখক যেহেতু পবিত্র আত্মার সাহায্যে তার গসপেল লেখেছে তার মানে পবিত্র আত্মার স্মৃতি কম হয়ে গিয়েছে। সে জন্য কোন কিতাবেন কথা কোন কিতাবের নামে চালিয়ে দিয়েছে।

৩. মার্ক 2:26 —
26.”অবিযাথর যখন প্রধান যাজক ছিলেন সেই সময় দাযূদ কেমন করে ঈশ্বরের গৃহে গিয়ে য়ে রুটি যাজক ছাড়া অন্য আর কারো খাওযা বিধি-সম্মত ছিল না, তা নিজে খেয়েছিলেন ও তাঁর সঙ্গীদের খাইয়েছিলেন?’

✪ যীশু কি ভুল ছিলেন যখন তিনি অহিমেলেকের পরিবর্তে অবিযাথরকে মহাযাজক হিসেবে উল্লেখ করেছিলেন?

সমস্যা: যীশু বলেছেন যে ডেভিড যখন পবিত্র রুটি খেয়েছিলেন, তখন আবিয়াথার ছিলেন মহাযাজক। তবুও(1 স্যামুয়েল 21:1-6) উল্লেখ করে যে সেই সময়ে মহাযাজক ছিলেন অহিমেলক। তো এখন আমরা কাকে সত্য বলবো মার্ককে নাকি স্যামুয়েল কে। কারন এক জন কে সত্য বললে অনেক জন মিথ্যাবাদী বলে প্রমানিত হবে।

৪৷ মথি 8:28-34—
২৮. ”পরে যীশু সাগরের অন্য পারে গাদারীয়দের এলাকায় গেলেন। তখন মন্দ আত্মায় পাওয়া দু’জন লোক কবরস্থান থেকে বের হয়ে তাঁর কাছে আসল। ২৯. তারা এমন ভয়ঙ্কর ছিল যে, কেউই সেই পথ দিয়ে যেতে পারত না। তারা চিৎকার করে বলল, “হে ঈশ্বরের পুত্র, আমাদের সংগে আপনার কি দরকার? সময় না হতেই কি আপনি আমাদের যন্ত্রণা দিতে এখানে এসেছেন?”
৩০. তাদের কাছ থেকে বেশ কিছু দূরে খুব বড় এক পাল শূকর চরে বেড়াচ্ছিল।
৩১. মন্দ আত্মারা যীশুকে অনুরোধ করে বলল, “আপনি যদি আমাদের দূর করেই দিতে চান তবে ঐ শূকরের পালের মধ্যেই পাঠিয়ে দিন।”
৩২. যীশু তাদের বললেন, “তা-ই যাও।” তখন তারা বের হয়ে শূকরগুলোর মধ্যে গেল। তাতে সেই শূকরের পাল ঢালু পার দিয়ে জোরে দৌড়ে গেল এবং সাগরের জলে ডুবে মরল।
৩৩. যারা সেই পাল চরাচ্ছিল তারা তখন দৌড়ে গ্রামে গিয়ে সব খবর জানাল। বিশেষ করে সেই মন্দ আত্মায় পাওয়া লোকদের বিষয়ে তারা সবাইকে বলল।
৩৪. তখন গ্রামের সব লোক বের হয়ে যীশুর সংগে দেখা করতে গেল। যীশুর সংগে দেখা হলে পর তারা তাঁকে অনুরোধ করল যেন তিনি তাদের এলাকা ছেড়ে চলে যান।,,

✪ কোথায় প্রেতাত্মারা সুস্থ হয়েছিল?

সমস্যা: প্রথম তিনটি গসপেল (মথি, মার্ক এবং লুক) প্রত্যেকটি যীশুর দানবদের নিরাময় করার একটি বিবরণ দেয়। মথি বলেছেন যে যে জায়গাটি নিরাময় হয়েছিল সেটি ছিল,, গাদারেনদের,, দেশ। যাইহোক, (মার্ক 5.1-20) এবং (লুক 8.26-39) বলেছেন যে এটি,, গেরাসেনদের,, দেশে ছিল। আসলে এখানে কার কথা সত্য। আর এখানে কে সত্য বলেছে এটা বুঝার মানদন্ড কি।

৫. মার্ক 6:5 —
৫.” তারপর তিনি কয়েকজন অসুস্থ লোকের উপর হাত রেখে তাদের সুস্থ করলেন, কিন্তু সেখানে আর কোন আশ্চর্য কাজ করা সম্ভব হল না।,,

✪ যদি যীশু ঈশ্বর হন, তাহলে তিনি কেন এখানে শক্তিশালী কাজ করতে পারলেন না?

সমস্যা: প্রথমত, বাইবেল যীশুকে ঈশ্বর হিসাবে বর্ণনা করে (যোহন 1:1 ) যিনি পিতার সাথে, “স্বর্গ ও পৃথিবীতে সমস্ত কর্তৃত্ব” ( মথি. 28:18 )। যাইহোক, এই উপলক্ষে যীশু “সেখানে কোন শক্তিশালী কাজ করতে পারেননি” (মথি 6.5 )। তিনি কেন পারলেন না, যদি তিনি সর্বশক্তিমান হন? এ সব এর সমাধান কোনো খ্রিস্টান পাদ্রির কাছে আছে।

৬. মথি 10:10 —
১০. ”পথের জন্য কোন রকম থলি, দু’টা জামা, জুতা বা লাঠিও নিয়ো না, কারণ যে কাজ করে সে খাওয়া-পরা পাবার যোগ্য।,,

✪ যীশু কি আদেশ দিয়েছিলেন যে শিষ্যরা একটি লাঠি নেবে কি না?

সমস্যা: মথিতে, যীশু বলেছেন যে শিষ্যদের একটি লাঠি নেওয়া উচিত নয়, কিন্তু (মার্ক 6.8) এর মধ্যে দেখা যাচ্ছে যে তিনি তাদের একটি লাঠি রাখার অনুমতি দিয়েছেন। এখানে কোনটা সঠিক আর কোনটা ভুল। এ প্রশ্ন রেখে যাচ্ছি খ্রিস্টানদের কাছে।

৭. মার্ক 8:11-12 —
১১. ”সেখানে ফরীশীরা এসে যীশুর সংগে তর্ক করতে লাগলেন এবং তাঁকে পরীক্ষা করবার জন্য স্বর্গ থেকে কোন একটা চিহ্ন দেখতে চাইলেন।
১২. এতে যীশু গভীর দীর্ঘনিঃশ্বাস ফেলে বললেন, “এই কালের লোকেরা চিহ্নের খোঁজ করে কেন? আমি আপনাদের সত্যিই বলছি, কোন চিহ্নই এদের দেখানো হবে না।”

✪ যীশু কি এই বলে নিজেকে বিরোধিতা করেছিলেন যে কোন চিহ্ন দেওয়া হবে না (.মথি 12:38-39 )?

সমস্যা: মার্ক-এ, ফরীশীরা যীশুর কাছে একটি চিহ্ন চেয়েছিল, কিন্তু তিনি বলেছেন যে সেই প্রজন্মকে কোন চিহ্ন দেওয়া হবে না। কিন্তু মথি এর বিবরণ বলে যে খ্রীষ্ট উত্তর দিয়েছিলেন যে হযরত ইউনুসের চিহ্ন দেওয়া হবে (যেমন, যীশুর পুনরুত্থান)। আমার মনে হয় না এটা সম্পন্ন ফ্যালাছি করা হয়েছে। আর এসবের সমাধান কি।

৮. মার্ক 9:48 —
৪৮. ”সেই নরকে মরা মানুষের মাংস খাওয়া পোকারা কখনও মরে না, আর সেখানকার আগুন কখনও নেভে না।,,

✪ কেন যীশু বলেছিলেন নরকে কীট মরবে না?

সমস্যা: যীশু বলেছিলেন যে নরক হল একটি জায়গা “যেখানে তাদের কীট মারা যায় না এবং আগুন নিভে না” ( মার্ক 9:48 )। কিন্তু চিরস্থায়ী কীটদের নরকের সাথে কী সম্পর্ক আছে?

৯. মথি 19:16-30
১৬. ”পরে একজন যুবক এসে যীশুকে বলল, “গুরু, অনন্ত জীবন পাবার জন্য আমাকে ভাল কি করতে হবে?”
১৭. তিনি তাকে বললেন, “ভালোর বিষয়ে কেন আমাকে জিজ্ঞাসা করছ? ভাল মাত্র একজনই আছেন। যদি তুমি অনন্ত জীবন পেতে চাও তবে তাঁর সব আদেশ পালন কর।”
১৮. সেই যুবকটি বলল, “কোন্‌ কোন্‌ আদেশ?”
যীশু বললেন, “খুন কোরো না, ব্যভিচার কোরো না, চুরি কোরো না, মিথ্যা সাক্ষ্য দিয়ো না,
১৯. মা-বাবাকে সম্মান কোরো আর তোমার প্রতিবেশীকে নিজের মত ভালবেসো।”
২০. সেই যুবকটি যীশুকে বলল, “আমি এগুলো সবই পালন করে আসছি, তবে আমাকে আর কি করতে হবে?”
২১. যীশু তাকে বললেন, “যদি তুমি পুরোপুরি খাঁটি হতে চাও তবে গিয়ে তোমার সমস্ত সম্পত্তি বিক্রি করে গরীবদের দান কর। তাতে তুমি স্বর্গে ধন পাবে। তারপর এসে আমার শিষ্য হও।”
২২. এই কথা শুনে যুবকটি খুব দুঃখিত হয়ে চলে গেল, কারণ তার অনেক ধন-সম্পত্তি ছিল।
২৩. তখন যীশু তাঁর শিষ্যদের বললেন, “আমি তোমাদের সত্যিই বলছি, ধনী লোকের পক্ষে স্বর্গ-রাজ্যে ঢোকা কঠিন হবে।
২৪. আমি আবার তোমাদের বলছি, ধনী লোকের পক্ষে ঈশ্বরের রাজ্যে ঢুকবার চেয়ে বরং সূচের ফুটা দিয়ে উটের ঢোকা সহজ।”
২৫. এই কথা শুনে শিষ্যেরা আশ্চর্য হয়ে বললেন, “তাহলে কে পাপ থেকে উদ্ধার পেতে পারে?”
২৬. যীশু শিষ্যদের দিকে তাকিয়ে বললেন, “মানুষের পক্ষে এটা অসম্ভব বটে, কিন্তু ঈশ্বরের পক্ষে সবই সম্ভব।”
২৭. তখন পিতর তাঁকে বললেন, “দেখুন, আমরা সব কিছু ছেড়ে আপনার শিষ্য হয়েছি; আমরা কি পাব?”
২৮. যীশু তাঁদের বললেন, “আমি তোমাদের সত্যিই বলছি, তোমরা যারা আমার শিষ্য হয়েছ, নতুন সৃষ্টিতে যখন মনুষ্যপুত্র তাঁর সম্মানের সিংহাসনে বসবেন তখন তোমরাও বারোটা সিংহাসনে বসবে এবং ইস্রায়েলের বারো বংশের বিচার করবে।
২৯. আর যে কেউ আমার জন্য বাড়ী-ঘর, ভাই-বোন, মা-বাবা, ছেলে-মেয়ে কিম্বা জায়গা-জমি ছেড়ে দিয়েছে, সে তার একশো গুণ বেশী পাবে আর অনন্ত জীবনও পাবে।
৩০. যারা প্রথম সারিতে আছে তাদের মধ্যে অনেকে শেষে পড়বে, আর যারা শেষের সারিতে আছে তাদের মধ্যে অনেকে প্রথম হবে।”

আরো দেখুন— (.মার্ক 10:17-31 ; লূক 18:18-30 )

 

✪ যীশু যদি ঈশ্বর হন, তাহলে কেন তিনি ধনী যুবক শাসককে ভাল বলার জন্য তিরস্কার করেছেন বলে মনে হচ্ছে?

সমস্যা: ধনী যুবক শাসক যীশুকে “ভাল গুরু” বলে ডাকলেন এবং যীশু তাকে ধমক দিয়ে বললেন, “আপনি আমাকে কেন ভাল বলছেন? একজন ছাড়া কেউ ভালো নয়, অর্থাৎ ঈশ্বর।” তবুও অন্যান্য অনুষ্ঠানে যীশু শুধুমাত্র নিজেকে ঈশ্বর বলে দাবি করেননি ( মার্ক 2:8-10 ;যোহন 8:58 ; 10:30 ), । কেন যীশু যুবক শাসকের কাছে ঈশ্বর ছিলেন তা অস্বীকার করতে দেখা গেল? আসলে আমরা কোনটা রেখে কোনটা মানবো। আমরা এসব খ্রিস্টানদের কাছে রেখে যাচ্ছি।

১০. মথি 20:20
২০. ” পরে সিবদিয়ের দুই ছেলেকে তাঁদের মা সংগে করে নিয়ে যীশুর কাছে আসলেন এবং তাঁর কাছে কিছু চাইবার উদ্দেশ্যে তাঁকে প্রণাম করলেন।,,

✪ কে যিশুর সাথে কথা বলতে এসেছিল, জেমস এবং জনের মা বা জেমস এবং জন?

সমস্যা: মথিতে , জেমস এবং জনের মা যীশুর কাছে একটি অনুরোধ করেছিলেন।
যাইহোক, (মার্ক 10.35) বলেছেন যে জেমস এবং জন তাদের অনুরোধ করতে যীশুর কাছে এসেছিলেন। মথি ও মার্ক এখানে কে সত্য আর কে মিথ্যা। এসবের কোনো সমাধান আছে কি কোনো খ্রিস্টানদের কাছে যে মথি ঠিক নাকি মার্ক।

১১. মথি 20:29-34
২৯.” যীশু ও তাঁর শিষ্যেরা যিরীহো শহর ছেড়ে যাবার সময় অনেক লোক যীশুর পিছনে পিছনে চলল।
৩০. পথের ধারে দু’জন অন্ধ লোক বসে ছিল। যীশু সেই পথ দিয়ে যাচ্ছেন শুনে তারা চিৎকার করে বলল, “প্রভু, দায়ূদের বংশধর, আমাদের দয়া করুন।”
৩১. তারা যেন চুপ করে সেইজন্য লোকেরা তাদের ধমক দিল। কিন্তু তারা আরও চিৎকার করে বলল, “প্রভু, দায়ূদের বংশধর, আমাদের দয়া করুন।”
৩২. তখন যীশু দাঁড়ালেন এবং তাদের ডেকে বললেন, “তোমরা কি চাও? আমি তোমাদের জন্য কি করব?”
৩৩. তারা তাঁকে বলল, “প্রভু, আমাদের চোখ খুলে দিন।”
৩৪. তখন যীশু মমতায় পূর্ণ হয়ে তাদের চোখ ছুঁলেন, আর তখনই তারা দেখতে পেল এবং তাঁর পিছনে পিছনে চলল।,,

✪ যীশু কি দুইজন অন্ধকে সুস্থ করেছিলেন নাকি একজনকে?

সমস্যা: মথি বলেছেন যে খ্রিস্ট দুই ব্যক্তিকে সুস্থ করেছেন, কিন্তু (মার্ক 10.46-52) শুধুমাত্র একজন মানুষকে সুস্থ করার কথা উল্লেখ করেছেন । এটি একটি স্পষ্ট দ্বন্দ্ব বলে মনে হচ্ছে আমাদের। কারন এক ঘটনাই দুইজন লেখক উল্লেখ করেছে এক জন বলেছে দুইজন আর একজন বলেছে একজন। আসলে এখানে কে ভুল বা কে সঠিক।

১২. মথি 21:2—
২. “তোমরা ঐ সামনের গ্রামে যাও। সেখানে গেলেই দেখতে পাবে একটা গাধা বাঁধা আছে এবং একটা বাচ্চাও তার সংগে আছে। সেই দু’টা খুলে আমার কাছে নিয়ে এস। ৩ কেউ যদি কিছু বলে তবে বোলো, ‘প্রভুর দরকার আছে।’ তাতে তখনই সে তাদের ছেড়ে দেবে।”

✪ বিজয়ী প্রবেশে কি দুটি গাধা জড়িত ছিল নাকি একটি মাত্র?

সমস্যা: মথির বিবরণে যীশুর দুই শিষ্যকে একটি গ্রামে গিয়ে দুটি গাধা আনার অনুরোধ করা হয়েছে। কিন্তু (মার্ক 11.2) এবং (লুকে 19.30) , তিনি অনুরোধ করেন যে দুই শিষ্য শুধু গাধাটি পান। এখানে কোনটি সঠিক মার্ক নাকি মথি।

১৩. মার্ক 11:23-24 —
২৩. ”আমি তোমাদের সত্যিই বলছি, যদি কেউ অন্তরে কোন সন্দেহ না রেখে এই পাহাড়টাকে বলে, ‘উঠে সাগরে গিয়ে পড়,’ আর বিশ্বাস করে যে, সে যা বলল তা-ই হবে, তবে তার জন্য তা-ই করা হবে।
২৪. সেইজন্য আমি তোমাদের বলছি, প্রার্থনার মধ্যে তোমরা যা কিছু চাও, বিশ্বাস কোরো তোমরা তা পেয়েছ, আর তোমাদের জন্য তা-ই হবে।,,

✪ যীশু কি প্রতিজ্ঞা করেছিলেন যে আমরা বিশ্বাসে যা চাই তা আক্ষরিক অর্থে দেব?

সমস্যা: এর মুখে, এই ভার্সটি বলে মনে হচ্ছে যে যতক্ষণ আমরা বিশ্বাস করি ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা তাঁর কাছে যে কোনও অনুরোধ করব ঈশ্বর তা দেবেন। অন্যদিকে, পৌল তিনবার ঈশ্বরের কাছে তার দেহের কাঁটা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য অনুরোধ করেছিলেন, এবং ঈশ্বর প্রত্যাখ্যান করেছিলেন
( 2 করিন্থীয়. 12:8-9 )।

১৪. মার্ক 13:32 —
৩২. “সেই দিন ও সেই সময়ের কথা কেউই জানে না-স্বর্গের দূতেরাও না, পুত্রও না, কেবল পিতাই জানেন।,,

✪ যীশু কি তাঁর দ্বিতীয় আগমনের সময় সম্পর্কে অজ্ঞ ছিলেন?

সমস্যা: বাইবেল শিক্ষা দেয় যে যীশু হলেন ঈশ্বর
( যোহন 1:1 ) এবং তিনি সব কিছু জানেন (যোহন 2:24 ; কলশীয় 2:3 )। অন্যদিকে, তিনি “প্রজ্ঞা বৃদ্ধি করেছেন” ( লুক 2:52 ) এবং কখনও কখনও কিছু জিনিস জানেন বলে মনে হয় না (যোহন 11:34 )। প্রকৃতপক্ষে, তিনি তাঁর নিজের দ্বিতীয়বার এখানে আসার সময় জানার বিষয়টি অস্বীকার করেছিলেন, বলেছিলেন, “কিন্তু সেই দিন এবং ঘন্টা কেউ জানে না, স্বর্গের ফেরেশতারা না পুত্র, তবে কেবল পিতা।”

১৫. মার্ক 14:12—
১২.” খামিহীন রুটির পর্বের প্রথম দিনে উদ্ধার-পর্বের ভোজের জন্য ভেড়ার বাচ্চা কাটা হত। তাই শিষ্যেরা যীশুকে জিজ্ঞাসা করলেন, “আপনার জন্য উদ্ধার-পর্বের ভোজ কোথায় গিয়ে আমাদের প্রস্তুত করতে বলেন?”

✪ যীশু কি নিস্তারপর্বের দিন বা তার আগের দিন প্রভুর ভোজ প্রবর্তন করেছিলেন?

সমস্যা: যদি প্রথম তিনটি গসপেল (সারসংক্ষেপ) সঠিক হয়, তাহলে যীশু প্রভুর নৈশভোজের প্রবর্তন করেছিলেন “খামিরবিহীন রুটির প্রথম দিনে, যখন তারা নিস্তারপর্বের মেষশাবককে হত্যা করেছিল” (মথি 26:17 ; লুক 22:1 )। কিন্তু যোহন এটাকে “নিস্তারপর্বের উৎসবের আগে” ( যোহন 13:1 ), ক্রুশবিদ্ধ হওয়ার আগের দিন যেদিন “তারা নিস্তারপর্ব খেতে পারে” ( যোহন 18:28 ) রাখে।

১৭. মথি 26:34 —
৩৪. ”যীশু তাঁকে বললেন, “কিন্তু আমি তোমাকে সত্যিই বলছি, আজ ভোর রাতে মোরগ ডাকবার আগেই তুমি তিন বার বলবে যে, তুমি আমাকে চেনো না।”

✪ পিতর যখন খ্রীষ্টকে অস্বীকার করেছিলেন, তখন মোরগ কি একবার বা দুবার ডেকেছিল?

সমস্যা: মথি এবং (যোহন 13:38 ) একবার মোরগ ডাকার আগে বলেন, পিতর তিনবার প্রভুকে অস্বীকার করবে। কিন্তু (মার্ক 14.30) নিশ্চিত করেছেন যে দুবার মোরগ ডাকার আগে পিতর তিনবার খ্রীষ্টকে অস্বীকার করবে। কোন হিসাব সঠিক?

১৮. মার্ক 15:25—
২৫. ”সকাল ন’টার সময় তারা যীশুকে ক্রুশে দিয়েছিল।,,

✪ যীশুকে কি তৃতীয় বা ষষ্ঠ ঘণ্টায় ক্রুশবিদ্ধ করা হয়েছিল?

সমস্যা: মার্কের গসপেল বিবরণ বলে যে এটি ছিল তৃতীয় ঘন্টা (ইহুদি সময় সকাল 9টা) যখন খ্রীষ্টকে ক্রুশবিদ্ধ করা হয়েছিল ( মার্ক 15:25 )। যোহনের গসপেল বলে যে এটি প্রায় ষষ্ঠ ঘন্টা (ইহুদি সময় 12টা) যখন যীশু এখনও বিচারে ছিলেন
( যোহন 19:14 )। এটি মার্ক দ্বারা নির্দিষ্ট করা থেকে অনেক পরে তাঁর ক্রুশবিদ্ধ হবে। তাহলে এখন কোন গসপেল সঠিক?

১৯. মথি 27:37—
৩৭. ”তারা ক্রুশে যীশুর মাথার উপরের দিকে এই দোষ-নামা লাগিয়ে দিল, “এ যীশু, যিহূদীদের রাজা।”

✪ কেন ক্রুশের উপর শিলালিপির সমস্ত গসপেলের বিবরণ আলাদা?

সমস্যা: ক্রুশের উপর খ্রীষ্টের মাথার উপরে অভিযোগের শব্দ প্রতিটি গসপেলের বিবরণে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।
যেমনঃ

মথি: “ইনি ইহুদিদের রাজা যীশু” ( মথি 27:37 )।

মার্ক: “ইহুদিদের রাজা” ( মার্ক 15:26 )।

লুক: “ইনি ইহুদিদের রাজা” ( লুক 23:38 )।

যোহন : “নাসরতের যীশু, ইহুদীদের রাজা”
( যোহন 19:19 )।

২০. মথি 27:54—
৫৪. ”সেনাপতি ও তাঁর সংগে যারা যীশুকে পাহারা দিচ্ছিল তারা ভূমিকম্প ও অন্য সব ঘটনা দেখে ভীষণ ভয় পেয়ে বলল, “সত্যিই উনি ঈশ্বরের পুত্র ছিলেন।”

✪ সে সেনাপতি ক্রুশে খ্রীষ্ট সম্পর্কে সত্যিই কী বলেছিলেন?

সমস্যা: মথি সে সেনাপতিকে এই বলে লিপিবদ্ধ করেছেন, “সত্যিই ইনি ঈশ্বরের পুত্র ছিলেন,”
যেখানে (মার্ক 15.39) যথেষ্ট পরিমাণে একই কথা বলেছেন, শুধুমাত্র “মানুষ” শব্দটি যোগ করেছেন, “সত্যিই এই মানুষটি ঈশ্বরের পুত্র”।
(লুক 23.47) সে সেনাপতির কথাগুলো এভাবে লিপিবদ্ধ করেছেন: “নিশ্চয়ই ইনি একজন ধার্মিক ব্যক্তি ছিলেন!” তিনি আসলে কি বলেছেন?

২১. মার্ক 16:2 —
২. ‘:সপ্তার প্রথম দিনের খুব সকালে, সূর্য উঠবার সংগে সংগেই তাঁরা কবরের কাছে গেলেন।”

✪ মরিয়ম কি সূর্যোদয়ের আগে বা পরে সমাধিতে ছিলেন?

সমস্যা: মার্ক বলেছেন যে মেরি সেখানে “খুব ভোরে … যখন সূর্য উদিত হয়েছিল” (মার্ক 16.2 )। কিন্তু যোহন বলেছেন “প্রথম দিকে, যখন অন্ধকার ছিল” (যোহন 20:1 )।
এখন আমরা কার কথা মানবো মার্কের নাকি যোহনের। কারন আমরা একটা মানতে গেলে আরেকটা বাতিল বলে প্রমানিত হচ্ছে।

২২. মার্ক 16:8 —
৮. ”সেই স্ত্রীলোকেরা কিছু বুঝতে না পেরে কাঁপতে কাঁপতে কবরের গুহা থেকে বের হয়ে আসলেন এবং সেখান থেকে দৌড়ে পালিয়ে গেলেন। তাঁরা এত ভয় পেয়েছিলেন যে, কাউকে কিছু বললেন না।”

✪ মহিলারা কি সমাধিতে তাদের অভিজ্ঞতার কথা বলেছিলেন নাকি?

সমস্যা: মার্ক বলেছেন যে মহিলারা খালি সমাধি থেকে ফিরে এসেছেন “কাউকে কিছু বলেনি, কারণ তারা ভয় পেয়েছিল” ( মার্ক 16:8 )। কিন্তু মথি জোর দিয়েছিলেন যে তারা “তাঁর শিষ্যদের কথা আনতে দৌড়েছিল” ( মথি. 28:8,9 )। তো এখন এখানে কে সত্য আর কে মিথ্যা। কারন মার্কের সাথে মথির কোনো মিল নাই।

২৩. মার্ক 16:9-20 —
৯. ”সপ্তার প্রথম দিনের ভোর বেলায় যীশু মৃত্যু থেকে জীবিত হয়ে উঠলেন। পরে তিনি মগ্‌দলীনী মরিয়মকে প্রথমে দেখা দিলেন। এই মরিয়মের ভিতর থেকে তিনি সাতটা মন্দ আত্মা ছাড়িয়েছিলেন।
১০. যীশুকে দেখবার পর মরিয়ম গিয়ে যাঁরা যীশুর সংগে থাকতেন তাঁদের কাছে খবর দিলেন। সেই সময় তাঁরা মনের দুঃখে কাঁদছিলেন।
১১. যীশু জীবিত হয়েছেন ও মরিয়ম তাঁকে দেখেছেন, এই কথা শুনে তাঁরা বিশ্বাস করলেন না।
১২. এর পরে তাঁর দু’জন শিষ্য যখন হেঁটে গ্রামের দিক যাচ্ছিলেন তখন যীশু অন্য রকম চেহারায় তাঁদের দেখা দিলেন।
১৩. তাঁরা ফিরে গিয়ে বাকী সবাইকে সেই খবর দিলেন, কিন্তু তাঁদের কথাও অন্য শিষ্যেরা বিশ্বাস করলেন না।
১৪. এর পরে যীশু তাঁর এগারোজন শিষ্যকে দেখা দিলেন। তখন তাঁরা খাচ্ছিলেন। বিশ্বাসের অভাব ও অন্তরের কঠিনতার জন্য তিনি তাঁদের বকলেন, কারণ তিনি মৃত্যু থেকে জীবিত হয়ে উঠবার পরে যাঁরা তাঁকে দেখেছিলেন তাঁদের কথা তাঁরা বিশ্বাস করেন নি।
১৫. যীশু সেই শিষ্যদের বললেন, “তোমরা পৃথিবীর সব জায়গায় যাও এবং সব লোকদের কাছে ঈশ্বরের দেওয়া সুখবর প্রচার কর।
১৬. যে কেউ বিশ্বাস করে এবং বাপ্তিস্ম গ্রহণ করে সে-ই পাপ থেকে উদ্ধার পাবে; কিন্তু যে বিশ্বাস করে না ঈশ্বর তাঁকে দোষী বলে স্থির করে শাস্তি দেবেন। ১৭. যারা বিশ্বাস করে তাদের মধ্যে এই চিহ্নগুলো দেখা যাবে-আমার নামে তারা মন্দ আত্মা ছাড়াবে, তারা নতুন নতুন ভাষায় কথা বলবে,
১৮. তারা হাতে করে সাপ তুলে ধরবে, যদি তারা ভীষণ বিষাক্ত কিছু খায় তবে তাদের কোন ক্ষতি হবে না, আর তারা রোগীদের গায়ে হাত দিলে রোগীরা ভাল হবে।”
১৯. শিষ্যদের কাছে এই সব কথা বলবার পরে প্রভু যীশুকে স্বর্গে তুলে নেওয়া হল। সেখানে তিনি ঈশ্বরের ডান দিকে বসলেন।
২০. পরে শিষ্যেরা গিয়ে সব জায়গায় প্রচার করতে লাগলেন। প্রভু তাঁদের মধ্য দিয়ে তাঁদের সংগে কাজ করতে থাকলেন এবং তাঁদের আশ্চর্য কাজ করবার শক্তি দিয়ে প্রমাণ করলেন যে, তাঁরা যা প্রচার করছেন তা সত্যি।,,

✪ কেন কিছু বাইবেলে উপরের
এই অনুচ্ছেদ গুলো বাদ দেওয়া হয়েছে?

সমস্যা: বেশিরভাগ আধুনিক বাইবেলে kjv , asv , nasb এবং nkjv সহ মার্কের গসপেলের এই সমাপ্তি রয়েছে । যাইহোক, rsv এবং niv উভয়ই এটিকে বাকি টেক্সট থেকে বন্ধ করে দিয়েছে। এনআইভিতে একটি নোটে বলা হয়েছে, “সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য প্রাথমিক পাণ্ডুলিপি এবং অন্যান্য প্রাচীন সাক্ষীদের কাছে নেই (মার্ক 16:9-20) ।” তাহলে মার্ক এর গসপেলে এই ভার্স গুলো কোথায় থেকে আসলো। এটা আমরা জানতে চাই খ্রিস্টানদের কাছে থেকে। এ সব এর সমাধান কি। কি ভাবে এগুলোর সমাধান দিবে খ্রিস্টানরা ?

২৪. মার্ক 16:12 —
১২. ”এর পরে তাঁর দু’জন শিষ্য যখন হেঁটে গ্রামের দিক যাচ্ছিলেন তখন যীশু অন্য রকম চেহারায় তাঁদের দেখা দিলেন।,,

✪ যীশু কি তাঁর পুনরুত্থানের পরে বিভিন্ন দেহে আবির্ভূত হয়েছিলেন?

সমস্যা: মার্কের মতে, যীশু এখানে “অন্য রূপে” আবির্ভূত হয়েছিলেন। এর থেকে, কেউ কেউ যুক্তি দেন যে পুনরুত্থানের পরে যীশু বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দেহ ধারণ করেছিলেন, কিন্তু পুনরুত্থানের আগে তাঁর একই অবিচ্ছিন্ন শারীরিক দেহ ছিল না। কিন্তু এটি পুনরুত্থান সম্পর্কে গোঁড়া ধারণার বিপরীত, যেমনটি অন্যান্য অনেক ভার্স দ্বারা নির্দেশিত ( লুক 24:34 এর মন্তব্য দেখুন )।

    0 0 votes
    Article Rating
    Subscribe
    Notify of
    guest
    0 Comments
    Inline Feedbacks
    View all comments
    Back to top button